kalerkantho


বড় তিন প্রকল্পের রেপ্লিকা বাজারে ছাড়ছে সরকার

পদ্মা সেতু ও রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের রেপ্লিকায় থাকবে নির্মাণস্থলের মাটি

আবুল কাশেম   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



বড় তিন প্রকল্পের রেপ্লিকা বাজারে ছাড়ছে সরকার

দেশের সবচেয়ে বড় তিন প্রকল্প পদ্মা সেতু, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ও বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের রেপ্লিকা তৈরি করে বাজারে ছাড়ার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এর মধ্যে পদ্মা সেতুর নির্মাণস্থলের মাটি ব্যবহার করা হবে এর রেপ্লিকায়।

আর রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের রিঅ্যাক্টর যে স্থানে বসবে সেখানকার মাটি থাকবে এটির রেপ্লিকায়। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের রেপ্লিকাও তৈরি করা হবে।

বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রার প্রতীক এই তিন প্রকল্পের রেপ্লিকা তৈরি করে বাজারজাত করা হবে। এ জন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। পুরো বিষয়টি দেখভাল করছেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ। তাঁর সভাপতিত্বে গত ৪ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় পদ্মা সেতু, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র এবং বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের রেপ্লিকা তৈরি করে বাজারজাত করার সিদ্ধান্ত হয়। ফলে যে কেউ এই তিনটি প্রকল্পের রেপ্লিকা নিজের ঘরে রাখতে পারবেন এবং প্রিয়জনকে উপহারও দিতে পারবেন।

এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব বলেন, পদ্মা সেতু, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ও বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ এবং দেশের মানুষের হৃদয়ের প্রকল্প। এ তিনটি প্রকল্প সারা দেশের মানুষ এবং বিশ্ববাসীর কাছে পরিচিত করে তুলতে এর রেপ্লিকা তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, রেপ্লিকায় পদ্মা সেতুর নির্মাণস্থল ও রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের রিঅ্যাক্টর যে স্থানে বসবে সেখানকার মাটি ব্যবহার করলে ভালো হয়। এ ছাড়া রেপ্লিকায় প্রধানমন্ত্রীর কোনো বাণী, যেমন : ‘নিজস্ব অর্থে পদ্মা সেতু গড়বোই’—এ ধরনের বক্তব্য থাকতে পারে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগমকে প্রধান করে এ জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে সেতু বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব ফয়জুর রহমান চৌধুরী এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব সিরাজুল হক খানকে সদস্য করা হয়েছে। কমিটিতে বেসরকারি সংস্থা সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) নির্বাহী পরিচালক সাব্বির বিন শামসকে সদস্যসচিব করা হয়েছে। এসব রেপ্লিকা তৈরির কাজ সিআরআইকে দেওয়া হতে পারে।

গত ৪ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ছয় সপ্তাহের মধ্যে রেপ্লিকার ডিজাইন চূড়ান্ত করতে প্রতিযোগিতা আহ্বান করবে কমিটি। এ ক্ষেত্রে তারা বিশেষজ্ঞ ও কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন একাধিক সদস্যের সমন্বয়ে বিশেষজ্ঞ প্যানেল তৈরি করবে। রেপ্লিকার ডিজাইন ও মডেল চূড়ান্ত করা, প্রস্তুত করা এবং তা বাজারজাতের বিষয়ে একটি নীতিমালা প্রণয়ন করবে এই কমিটি। প্রাথমিকভাবে ১০ হাজার রেপ্লিকা তৈরি করে তা বাজারজাত করার বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়।

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের রেপ্লিকা তৈরি করে দেশে-বিদেশে বাজারজাত করার পাশাপাশি বিদেশি অতিথিদের উপহার হিসেবে দিয়ে এসবের পরিচিতি বাড়ায়। সেতু বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ প্রসঙ্গে বলেন, চীন তাদের নির্মিত প্রথম সেতুর রেপ্লিকা প্রস্তুত করেছে, যা তারা প্রতিনিয়ত প্রমোট করে এবং উপহার হিসেবে দিয়ে থাকে।

রেপ্লিকা তৈরির ওই সভায় অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জালাল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, এ তিনটি প্রকল্প দেশের অনেক বড় ও গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প। এসব প্রকল্পের রেপ্লিকা তৈরির উদ্যোগটি খুবই ভালো। তবে রেপ্লিকার ডিজাইন খুবই আকর্ষণীয় ও আকৃতি সুন্দর হওয়া প্রয়োজন।


মন্তব্য