kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নিউ ইয়র্কে বিস্ফোরণ, ২৯ জন আহত

মিনেসোটায় ছুরি হামলায় জখম ৮

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



নিউ ইয়র্কে বিস্ফোরণ, ২৯ জন আহত

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক সিটির ম্যানহাটানে এক বিস্ফোরণে অন্তত ২৯ জন আহত হয়েছে। গত শনিবার রাতে ম্যানহাটানের চেলসি এলাকায় এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

এ বিস্ফোরণের পেছনে সুনির্দিষ্ট কোনো সন্ত্রাসী হামলার তথ্য পায়নি পুলিশ। তবে ওই বিস্ফোরণস্থলের কিছুটা দূরে প্রেশার কুকারের সঙ্গে তার দিয়ে মোবাইল ফোন সংযুক্ত একটি ‘ডিভাইস’ পাওয়া গেছে। নিউ জার্সি শহরে একটি পাইপবোমা বিস্ফোরণের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এ বিস্ফোরণ হলো।

এদিকে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের সেন্ট ক্লাউডে একটি বিপণিবিতানে বেসরকারি নিরাপত্তাকর্মীর পোশাক পরা এক হামলাকারীর ছুরিকাঘাতে অন্তত আটজন আহত হয়েছে। পরে পুলিশের গুলিতে ওই হামলাকারী নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। শনিবার রাত ৮টার দিকে সেন্ট ক্লাউডের ক্রসরোডস বিপণিবিতানে এ হামলার ঘটনা ঘটে। ম্যানহাটানের বিস্ফোরণ সম্পর্কে নিউ ইয়র্কের মেয়র বিল দ্য ব্লাসিও বলেন, এটি ‘পরিকল্পিত’ ঘটনা। তবে এর সঙ্গে কোনো সন্ত্রাসী যোগসাজশের তথ্য পাওয়া যায়নি বলে তিনি জানান।

গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটির কর্মকর্তারা পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন। প্রেশার কুকারের মাধ্যমে বানানো ‘ডিভাইস’টি নিরাপদে অন্যত্র সরিয়ে ফেলা হয়েছে। ‘ডিভাইসটির’ কাছেই কিছু লেখা এক টুকরো কাগজ পাওয়া গেছে। নিউ ইয়র্ক সিটির ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আহতদের কারো অবস্থা গুরুতর নয়।

এর আগে ২০১৩ সালে বোস্টন ম্যারাথন বোমা হামলায় প্রেশার কুকারের ভেতরে বিস্ফোরক ভরে সময় নিয়ন্ত্রকের সাহায্যে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল। ম্যাসাচুসেটসের দুই ভাইয়ের চালানো ওই হামলায় তিনজন নিহত ও ২৬০ জন আহত হয়েছিল। ম্যানহাটনের বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা বলে আমাদের নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বিস্ফোরণের পরপরই তাঁরা আতঙ্কিত ও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। অনেকেই এ ঘটনার পর তাঁদের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেন। তবে আহত ২৯ জনের মধ্যে কোনো বাংলাদেশি ছিল না বলে তাঁরা এ প্রতিনিধিকে জানিয়েছেন।

বিপণিবিতানে ছুরি হামলা : মিনেসোটায় বিপণিবিতানে ছুরি হামলায় আহত আটজনকে সেন্ট ক্লাউড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের কারো অবস্থা আশঙ্কাজনক নয় বলে জানিয়েছে হাসপাতাল সূত্রগুলো। সেন্ট ক্লাউড পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তা উইলিয়াম ব্লেয়ার অ্যান্ডারসন বলেন, ‘আমরা নিশ্চিত করছি, ছুরিকাঘাতকারী বলে ধারণা করা ব্যক্তি বিপণিবিতানের ভেতরে মরে পড়ে আছে। ’ হামলাকারী একজনই ছিল এবং তার কাছে অন্তত একটি ছুরি ছিল বলে নিশ্চিত করেন তিনি। অ্যান্ডারসন আরো বলেন, ‘এটি সন্ত্রাসী হামলা কি না আমরা তা জানি না। ’ হামলার উদ্দেশ্য বের করতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তবে গণমাধ্যমে বলা হয়, হামলাকারীকে ‘আল্লাহ’ উচ্চারণ করতে শোনা গেছে। এখনো হামলাকারীর পরিচয় জানা যায়নি। সূত্র : বিবিসি, ইউএস টুডে ও রয়টার্স।


মন্তব্য