kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঈদ উৎসব

গমগমা বিনোদনকেন্দ্রে

নওশাদ জামিল   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



গমগমা বিনোদনকেন্দ্রে

ঈদের ছুটিতে রাজধানীর বিনোদনকেন্দ্রগুলো ছিল জমজমাট। গতকাল মিরপুর চিড়িয়াখানায় ছিল দর্শনার্থীর ভিড়। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঈদে কোলাহলমুক্ত থাকে রাজধানী শহর ঢাকা। এ যেন দারুণ অবকাশ, স্বস্তি।

থাকে না যানজট,  গাড়ির বিকট হর্ন, কর্মব্যস্ত মানুষের ছোটাছুটি। এখন ঢাকার পথপ্রান্তর অনেকটা ফাঁকা, যানজটমুক্ত। ফলে রাজধানীবাসী ছুটে যাচ্ছে বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে। ঈদের দিন থেকেই মুখরিত পার্ক, সিনেমা হল, চিড়িয়াখানাসহ বিভিন্ন বিনোদনকেন্দ্র।

ঈদের দিন থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত নগরীর বিভিন্ন বিনোদনকেন্দ্র ছিল জমজমাট। ঈদের দিন সকালে রাজধানীতে বৃষ্টি হয়েছে। তবে বিকেল থেকেই আনন্দমুখর ছিল মিরপুর চিড়িয়াখানা, শাহবাগে শিশু পার্কসহ রাজধানীর বিনোদনকেন্দ্র।

ঈদের পরের দিন গত বুধবার জাতীয় জাদুঘর, আহসান মঞ্জিল, লালবাগ কেল্লাসহ ঘুরে বেড়ানোর জায়গাগুলোতে সপরিবারে এসেছিল অনেকে। জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজা, চন্দ্রিমা উদ্যান, হাতিরঝিল, বসুন্ধরার ৩০০ ফিট রাস্তা, ধানমণ্ডি লেকে ব্যাপক মানুষের সমাগম হয়। এতে শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে সব বয়সী মানুষ ছিল আনন্দমুখর। গতকালও এসব এলাকায় ছিল আনন্দের ঢেউ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গতকাল দুপুরের পর থেকে ভিড় বাড়ছিল নগরীর অন্যতম প্রধান বিনোদনকেন্দ্র শিশু পার্কে। শিশুদের কলকাকলিতে মুখরিত পার্কের রাইডগুলোর সামনে ছিল উপচে পড়া ভিড়। ‘লম্ফঝম্প’, ‘টয় ট্রেন’, ‘ঝোলানো চেয়ার’ আর ‘ম্যাজিক নৌকা’য় চড়ে শিশুরা ছিল উত্ফুল্ল। শিশুদের আনন্দ ছুঁয়ে গিয়েছিল সঙ্গে থাকা অভিভাবকদেরও। তবে শিশু পার্কের অব্যবস্থাপনা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেল অনেক অভিভাবককেও।

ধানমণ্ডির গৃহিণী সাবেরা ইসলাম বলেন, ‘গোটা শিশু পার্কই অপরিচ্ছন্ন। রাইডগুলোও বেশ পুরনো; ভয় হয় কখন কোন রাইড ছিঁড়ে যায়। পুরনো রাইডগুলো সরানো উচিত। কেননা যেকোনো সময় তা দুর্ঘটনার কারণ হতে পারে। ’ 

পাঁচ বছরের শিশু অয়নকে নিয়ে এসেছিলেন বাবা মহিউদ্দিন সরকার। কালের কণ্ঠকে তিনি বলেন, ‘ছেলেটা বায়না ধরল শিশু পার্কে আসার। ফাঁকা পেয়ে উত্তরা থেকে চলে এসেছি অল্প সময়েই। সত্যি এমন স্বস্তির ঢাকা পেলে সব কিছুতেই আনন্দ পেতাম। ’

শুধু শিশু পার্ক নয়, ভিড় দেখা গেছে টিএসসি, কার্জন হল, ফুলার রোড, কলাভবন, ভিসি চত্বরসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন এলাকায়। এ ছাড়া রমনা পার্ক, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের শিখা চিরন্তন, ছবির হাট, বেইলি রোডসহ সর্বত্রই ছিল উৎসবের মুখরতা।

ঈদের পরের দিন থেকেই মুুখর এফডিসি মোড় থেকে রামপুরা ব্রিজ পর্যন্ত গোটা হাতিরঝিল এলাকা।   গতকাল বিকেলে হাতিরঝিলের প্রতিটি মোড় আর সেতুতে ছিল না তিল ধারণের অবকাশ। হাতিরঝিলে কথা হয় মগবাজারের বাসিন্দা আমজাদ হোসেনের সঙ্গে। সঙ্গে তাঁর দুই ছেলে সানিম ও তানিম। কথা প্রসঙ্গে আমজাদ হোসেন বলেন, ‘হাতিরঝিলের পানিতে ময়লা বেড়ে গেছে। কাছে গেলে দুর্গন্ধ আসছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের তদারকি বাড়ানো উচিত। ’

ভিড় ছিল চিড়িয়াখানায়ও। ঈদের দিন বিকেল থেকে প্রতিদিনই চিড়িয়াখানায় বাড়ছে শিশু-কিশোরদের আনাগোনা। এ ছাড়া ভিড় ছিল জাতীয় জাদুঘরে। ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকার মানুষ ব্যাপক  কৌতূহল নিয়ে গ্যালারি পরিদর্শন করছে। ঈদের পরের দিন বুধবার সকাল থেকে খোলা রয়েছে জাতীয় জাদুঘর। জাদুঘরের জনশিক্ষা বিভাগের উপকিপার ড. শিহাব শাহরিয়ার বলেন ‘ঈদের দ্বিতীয় দিনে ২০ হাজার দর্শনার্থী গ্যালারি পরিদর্শন করেছে। ’

ঢাকার অদূরে আশুলিয়ার ফ্যান্টাসি কিংডম, ওয়াটার কিংডম, এক্সট্রিম রেসিং গো কার্ট ও হেরিটেজ পার্ক—এই চারটি বিনোদনকেন্দ্র জনসমুদ্রে পরিণত হয়। আশুলিয়ার আরেক বিনোদনকেন্দ্র নন্দন পার্কেও ছিল বিনোদনপ্রিয় মানুষের ভিড়।

উত্তরার কাছেই নতুন বিনোদনকেন্দ্র দিয়াবাড়িতেও ছিল দর্শনার্থীদের ভিড়। লেকের জলে ভেসে, কাশবনে ছোটাছুটি করে অনেকেই সময় কাটায় এখানে।

রাজধানীর সিনেমা হলগুলোতেও ছিল প্রচণ্ড ভিড়। মধুমিতা সিনেমা হলে শাকিব খান-শবনম বুবলীর ‘শুটার’ চলচ্চিত্রটি দেখতে ভিড় লেগেই আছে। অভিসারে চলছে শাকিব-বুবলীর আরেক সিনেমা ‘বসগিরি’। বসুন্ধরার স্টার সিনেপ্লেক্সে চলছে যৌথ প্রযোজনার সিনেমা ‘রক্ত’। ঢালিউডের পরীমণি আর টালিগঞ্জের নবাগত রোশানের এ সিনেমা দেখতে ভিড় করছে প্রচুর দর্শনার্থী।

ঈদের ছুটিতে অনেকে প্রেক্ষাগৃহে ঈদে মুক্তি পাওয়া সিনেমা দেখে, কেউ বা পরিবারের সবাইকে নিয়ে বাসায় বসে টেলিভিশনের ঈদের অনুষ্ঠান দেখে ছুটি উপভোগ করছে। ঈদে মুক্তি পেয়েছে তিনটি চলচ্চিত্র। মূলধারার বাণিজ্যিক সিনেমা হিসেবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শন সমিতির তালিকায় থাকা ছবিগুলো হচ্ছে ওয়াজেদ আলী সুমনের ‘রক্ত’, শামিম আহমেদ রনির ‘বসগিরি’ ও রাজু চৌধুরীর ‘শুটার’। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, যৌথ প্রযোজনার ছবিগুলো এবার দারুণ ব্যবসাসফল হয়েছে।


মন্তব্য