kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ওবামাকে গালি দুতার্তের, পরে বৈঠক বাতিল

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ওবামাকে গালি দুতার্তের, পরে বৈঠক বাতিল

মাকে তুলে গালি দেওয়ার জের ধরে ফিলিপাইনের বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তের সঙ্গে নির্ধারিত একটি বৈঠক বাতিল করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। লাওসে অ্যাসোসিয়েশন অব সাউথইস্ট এশিয়ান নেশনসের (আসিয়ান) সম্মেলনের ফাঁকে গতকাল মঙ্গলবার দুতার্তের সঙ্গে ওবামার প্রথমবারের মতো বৈঠক হওয়ার কথা ছিল।

এর আগের দিন সোমবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় ওবামাকে ‘বেশ্যার ছেলে’ বলে গালি দেন দুতার্তে। এ ঘটনার জের ধরে ওবামার সঙ্গে নির্ধারিত বৈঠকটি বাতিল হয়ে যাওয়ার পর দুতার্তে দুঃখ প্রকাশ করেছেন বলে ফিলিপাইনের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়।

গত জুন মাসে ক্ষমতা গ্রহণের পর মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন দুতার্তে। ফিলিপাইনের মাদকচক্রকে শেষ করতে তিনি মাদক কারবারিদের হত্যার অনুমতিও দিয়েছেন। তাঁর মাদকবিরোধী অভিযানে এ পর্যন্ত প্রায় ২৪ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য এখনো সরকারের পক্ষ থেকে প্রকাশ করা হয়নি।

দুতার্তের কর্মকাণ্ড নিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গন উদ্বেগ প্রকাশ করলেও সিদ্ধান্তে অটল তিনি। জাতিসংঘ মানবাধিকারের কথা বলে তাঁর এই কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে আসছে। সম্প্রতি ওবামাও বলেছিলেন, আসিয়ান সম্মেলনে ফিলিপাইনের মাদকচক্রের সঙ্গে সম্পর্কিত বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি উত্থাপন করবেন তিনি।

সোমবার লাওসের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে দুতার্তে বলেন, লাওসের বৈঠকে মানবাধিকার বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে কোনো বক্তৃতা শুনবেন না তিনি। মানবাধিকারের প্রসঙ্গ তুললে তা ওবামার জন্য অপ্রীতিকর হবে। তিনি বলেন, ‘আমি যুক্তরাষ্ট্রের পুতুল নই। আমি একটি স্বাধীন-সার্বভৌম দেশের প্রেসিডেন্ট। কোনো উপনিবেশের দায়িত্বে নই। ফিলিপাইনের জনগণ ছাড়া আর কারো কাছে আমার কোনো দায়বদ্ধতা নেই। আপনি যেই হোন না কেন, বক্তব্য দেওয়ার আগে সচেতন হতে হবে, সম্মান দিতে হবে। শুধু বলার বলা—তাই একটা প্রশ্ন বা বক্তব্য ছুড়ে দিলেই চলবে না। ’ এ সময় ওবামার উদ্দেশে দুতার্তে বলেন, ‘তাহলে ওই সম্মেলনে আমি আপনাকে বেশ্যার ছেলে বলে গালি দেব। ’

বিষয়টি জানতে পেরে ওবামা সাংবাদিকদের বলেন, “ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট একজন ‘কালারফুল’ মানুষ। এ ধরনের বক্তব্য তিনি আগেও দিয়েছেন। আমি আমার কর্মকর্তাদের খতিয়ে দেখতে বলেছি, ফিলিপাইন সরকার আদৌ কোনো গঠনমূলক আলোচনা চায় কি না। ফিলিপাইনের মানুষ আমাদের খুবই আপন। মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই খুব শক্ত কাজ, সন্দেহ নেই। কিন্তু তা অবশ্যই আন্তর্জাতিক আইনের সীমারেখা লঙ্ঘন করে নয়। ” ওবামার এই বক্তব্যের পর দুই নেতার বৈঠক নিয়ে সংশয় সৃষ্টি হয়। এর পরই বৈঠকটি বাতিলের বিষয়ে হোয়াইট হাউস থেকে ঘোষণা আসে।

গতকাল এক বিবৃতিতে রদ্রিগো দুতার্তে বলেন, ‘আমার বক্তব্য মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রতি ব্যক্তিগত আক্রমণ মনে হওয়ায় আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। ’ আগামীতে দুই দেশের জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বৈঠকের ব্যাপারে তিনি আশাবাদী বলেও বিবৃতিতে জানান। সূত্র : বিবিসি, এএফপি, রয়টার্স।


মন্তব্য