kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আদালতে দায় স্বীকার করেছে ওবায়দুল

আদালত প্রতিবেদক   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



আদালতে দায় স্বীকার করেছে ওবায়দুল

রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার রিশাকে হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে এ মামলার একমাত্র আসামি ওবায়দুল হক। আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিতে ওবায়দুল বলে, ‘প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় আমি তাকে (রিশা) ছুরিকাঘাত করি।

গতকাল সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম আহসান হাবিব ওবায়দুলের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

গত ১ সেপ্টেম্বর ওবায়দুলকে ছয় দিনের রিমান্ডে পায় পুলিশ। তবে রিমান্ডের চার দিনের মাথায় দোষ স্বীকার করতে রাজি হওয়ায় গতকাল তাকে আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রমনা থানার পরিদর্শক মো. আলী হোসেন।

এ ছাড়া সাক্ষী হিসেবে চাকু বিক্রেতা মোহাম্মদ হোসেনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও গ্রহণ করেছেন আদালত। আসামি ওবায়দুল তাঁর কাছ থেকেই হত্যায় ব্যবহূত চাকু কিনেছিল বলে তিনি আদালতকে জানান।

আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার সংশ্লিষ্ট পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্তা এসআই মিজানুর রহমান বলেন, ‘জবানবন্দিতে ওবায়দুল হত্যার পূর্বাপর সবিস্তার বর্ণনা করে নিজেকে হত্যাকারী হিসেবে স্বীকার করে। ’

গত ২৪ আগস্ট কাকরাইলে উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের সামনের ফুট ওভারব্রিজে এক যুবকের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয় ওই স্কুলেরই ছাত্রী রিশা (১৪)। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন ২৮ আগস্ট তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় রিশার মা তানিয়া বেগম বাদী হয়ে রমনা থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় এলিফ্যান্ট রোডের বিপণিবিতান ইস্টার্ন মল্লিকার বৈশাখী টেইলার্সের কর্মী ওবায়দুলকে আসামি করা হয়।

তানিয়া বেগম জানান, কয়েক মাস আগে বৈশাখী টেইলার্সে একটি জামা বানাতে দিয়ে যোগাযোগের জন্য সেখানে তিনি নিজের ফোন নম্বর দিয়েছিলেন। সেই থেকে ওবায়দুল ওই নম্বরে ফোন করে প্রায়ই রিশাকে বিরক্ত করছিল।

রিশার হত্যাকারীকে গ্রেপ্তারের দাবিতে উইলসের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে গত ৩১ আগস্ট সকালে নীলফামারীর ডোমার থেকে ওবায়দুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। নিহত রিশা রাজধানীর বংশাল থানাধীন সিদ্দিক বাজার এলাকার রমজান হোসেনের মেয়ে। অন্যদিকে ওবায়দুল দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের মীরাটঙ্গী গ্রামের মৃত আবদুস সামাদের ছেলে।

বিচার দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি : রাজধানীর উইল্স লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার রিশা হত্যার বিচারের দাবিতে পুরান ঢাকার স্কুল-কলেজে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ কর্মসূচির আয়োজন করেছে সামাজিক সংগঠন ‘পুরান ঢাকা মঞ্চ’।

গতকাল পুরান ঢাকার আহমেদ বাওয়ানী একাডেমীতে এই গণস্বাক্ষর কার্যক্রমের সূচনা করেন রিশার বাবা মো. রমজান আলী। স্কুলের কয়েক শ শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও ঢাকা ইয়ুথ ক্লাবের কর্মী-সংগঠকরা এই কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন মঞ্চের যুগ্ম আহ্বায়ক আওলাদ হোসেন রবিন, যুগ্ম সদস্যসচিব আলোকচিত্র সাংবাদিক শাকিল হোসেন, মতিউর রহমান প্রমুখ।

কর্মসূচির অন্যতম আয়োজক সোহাগ মহাজন বলেন, রিশা হত্যার বিচার দাবিতে চলমান কর্মসূচির অংশ হিসেবে তাঁদের এই আয়োজন। আজ লালবাগের হাজি সেলিম ডিগ্রি কলেজ ও বেগম বদরুন্নেসা কলেজে স্বাক্ষর সংগ্রহ চলবে।


মন্তব্য