kalerkantho


পেশাজীবীদের সঙ্গে ইফতার প্রধানমন্ত্রীর

বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টে কবি মহাদেব সাহার অনুদান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৯ জুন, ২০১৬ ০০:০০



পেশাজীবীদের সঙ্গে ইফতার প্রধানমন্ত্রীর

বিভিন্ন পুরস্কারে পাওয়া অর্থ থেকে এক লাখ টাকার চেক গতকাল গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের জন্য তুলে দেন কবি মহাদেব সাহা। ছবি : সংগৃহীত

শিক্ষক, কবি, লেখক, সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী, আইনজীবী, শিল্পী, চিকিৎসক, ব্যবসায়ী, ক্রীড়া ব্যক্তিত্বসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতাদের সম্মানে গতকাল মঙ্গলবার গণভবনে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইফতারের কিছুক্ষণ আগে তিনি অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হয়ে আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য সাজানো বিভিন্ন টেবিলে গিয়ে তাঁদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং তাঁদের খোঁজখবর নেন।

ইফতারের আগে দেশের অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

মোনাজাতে ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, শেখ ফজিলাতুননেসা মুজিব ও তাঁদের সঙ্গে নিহতদের, মুক্তিযুদ্ধে শহীদ ব্যক্তিদের রুহের মাগফিরাত এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘ জীবন ও সুস্বাস্থ্য কামনা করা হয়। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম আলহাজ মাওলানা এহসানুল হক মোনাজাত পরিচালনা করেন।

অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান, ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম, ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী, বিশিষ্ট লেখিকা সেলিনা হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, বিচারপতি মেজবাহউদ্দিন, অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন, এফবিসিসিআই সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ, বিশিষ্ট অভিনেতা রাজ্জাক ও কৃষিবিদ আমিরুল ইসলাম প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

ইফতারে কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, উপদেষ্টা সম্পাদক অমিত হাবিব ও নির্বাহী সম্পাদক মোস্তফা কামাল উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ, সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ), কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ, ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে), ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে), জাতীয় প্রেস ক্লাব, আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ, এফবিসিসিআই, বিজিএমইএ এবং সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টকে এক লাখ টাকা দিলেন কবি মহাদেব সাহা : এদিকে বিশিষ্ট কবি মহাদেব সাহা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে গঠিত বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টকে এক লাখ টাকা প্রদান করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল জানান, গতকাল গণভবনে ইফতার মাহফিলের পর কবি মহাদেব সাহা ট্রাস্টের চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এ অর্থ হস্তান্তর করেন।

শাকিল বলেন, বিভিন্ন উপলক্ষে পুরস্কার পাওয়ার মাধ্যমে মহাদেব সাহা এ অর্থ অর্জন করেন।

এ সময় বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান উপস্থিত ছিলেন।

মঙ্গোলিয়ার সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে গুরুত্বারোপ : দুই দেশের জনগণের নিজ নিজ পারস্পরিক স্বার্থে বাংলাদেশ এবং মঙ্গোলিয়ার মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদার করার পাশাপাশি বাংলাদেশ ও মঙ্গোলিয়ার মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্যের পরিমাণ বাড়ানোর জন্য আমাদের উদ্যোগ গ্রহণ করা উচিত। ’

গতকাল জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত মঙ্গোলিয়ার অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত গোনচিং গ্যানবোল্ড সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এলে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম বৈঠক সম্পর্কে সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানান।

প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে বিনিয়োগের জন্য আকর্ষণীয় স্থান উল্লেখ করে এখানে বিনিয়োগে এগিয়ে আসার জন্য মঙ্গোলীয় ব্যবসায়ী-উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য বাংলাদেশ সরকার প্রদত্ত নানা সুযোগ-সুবিধার কথাও তিনি তুলে ধরেন।

এ সময় মঙ্গোলিয়ার রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর বিপুল পরিমাণ পাট এবং ফার্মাসিউটিক্যাল সামগ্রী তাদের দেশ আমদানি করে থাকে বলেও জানান।

মঙ্গোলিয়ায় অনুষ্ঠেয় ১১তম এশিয়া-ইউরোপ মিটিং (এএসইএম)-কে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আখ্যায়িত করে এ বৈঠকের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো জোরদার হবে বলেও প্রধানমন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন। মঙ্গোলীয় রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে সে দেশের প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিজের শুভেচ্ছা বার্তা পাঠান শেখ হাসিনা।

মঙ্গোলীয় রাষ্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিদলের মঙ্গোলিয়ায় অনুষ্ঠেয় ‘এএসইএম’ সম্মেলনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্তে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

মঙ্গোলিয়ার রাজধানী উলানবাটোরে আগামী ১৫ এবং ১৬ জুলাই বিভিন্ন দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানদের সম্মেলন ১১তম এশিয়া-ইউরোপ মিটিং হওয়ার কথা রয়েছে।

দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে চার বাস : এদিকে নিটল-নিলয় গ্রুপের সৌজন্যে নগরীর দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কাছে চারটি বাস হস্তান্তর করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুটি করে বাস পেয়েছে  টিকাটুলি এলাকার শেরেবাংলা গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং আজিমপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ।

গতকাল প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবনে এক অনুষ্ঠানে তিনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানদের কাছে ৩৬ আসনের বাসের চাবি হস্তান্তর করেন। এ সময় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব সোহরাব হোসেন, নিটল-নিলয় গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমাদ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও নিটল-নিলয় গ্রুপের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তাঁর স্কুল ও কলেজ জীবনের স্মৃতি স্মরণ করে প্রতিষ্ঠান দুটিতে শিক্ষার্থীরা যাতে খেলাধুলায় অংশ নিতে পারে সে ব্যাপারে খেলার মাঠের সুযোগ রাখার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান।

শেখ হাসিনা শেরেবাংলা স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেন, পরে তিনি আজিমপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি সম্পন্ন করেন। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দুটির উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী। সূত্র : বাসস।


মন্তব্য