kalerkantho

25th march banner

প্রতিবাদ অব্যাহত

তদন্তে অগ্রগতি নেই সিআইডিতে হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা   

১ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



তদন্তে অগ্রগতি নেই সিআইডিতে হস্তান্তর

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যার প্রতিবাদ অব্যাহত রয়েছে। খুনি গ্রেপ্তারসহ বিচারের দাবিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে মিছিল, মানববন্ধন, পথসভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে গতকাল বৃহস্পতিবারও। তবে গতকাল পর্যন্ত তদন্তসংশ্লিষ্টরা খুনি শনাক্তে আশাব্যঞ্জক কোনো তথ্য জানাতে পারেনি। অন্যদিকে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি কথা বলেছেন তনুর পরিবার ও সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে। অন্যদিকে মামলা তদন্তের দায়িত্ব পাওয়া সিআইডি কর্মকর্তারা তথ্য-উপাত্ত বুঝে নিয়েছেন গোয়েন্দা বিভাগ থেকে। দ্বিতীয় দফা ময়নাতদন্তে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকদের একটি দল পরিবার সদস্যদের কাছে থেকে বেশ কিছু তথ্য জেনেছে।

উদ্বিগ্ন মানবাধিকার কমিশন : জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, ‘জঙ্গলের মধ্যে যে জায়গায় তনুর নিথর দেহ পড়ে ছিল, সে জায়গাটি এত পরিষ্কার অবস্থায় আছে, যেন সেখানে সদ্য কাউকে কবরে শায়িত করা হয়েছে। এটি প্রশ্নের উদ্রেক করে। যদি মাটি ভরাট করা হয়ে থাকে তাহলে আলামত বিনষ্ট হতে পারে। এটি তদন্তপ্রক্রিয়াকে জটিল করতে পারে। এই আশঙ্কা আমাদের মনে রয়েছে। সাক্ষ্য-প্রমাণ টেম্পারিং করার চেষ্টা হলে তাদেরকে বিচারের আওতায় নিয়ে আসা বাঞ্ছনীয়। ’ গতকাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে কুমিল্লা সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এসব কথা বলেন। মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পাশাপাশি কথা বলেন তনুর পরিবার, পুলিশ ও সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে।

সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের কাছে কমিশনের পর্যবেক্ষণ তুলে ধরে ড. মিজান বলেন, ন্যায়বিচারের স্বার্থে যাঁরা তদন্তের দায়িত্বে আছেন, তাঁদের পূর্ণ স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে। বিধিনিষেধ যেন ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় বাধা হয়ে না দাঁড়ায়, সে ব্যবস্থা করতে হবে। তনুর পরিবারের অনুপস্থিতিতে তনুর ব্যবহৃত জিনিসপত্র নিয়ে যাওয়া, ডিশ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা এবং পরিবারের সদস্যদের মধ্যরাতে র‌্যাব কার্যালয়ে নিয়ে মানসিক নির্যাতন করার বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে জানতে চাইবে কমিশন।

মামলার নথি হস্তান্তর : তনু হত্যা মামলার নথিপত্র সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। গতকাল রাতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর এ কে এম মনজুর আলম সিআইডির ইন্সপেক্টর গাজী মোহাম্মদ ইব্রাহিমের কাছে মামলার নথিপত্র হস্তান্তর করেন। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এখনো পৌঁছেনি বলে জানান মনজুর আলম।

এদিকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক কামদা প্রসাদ সাহার নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের ময়নাতদন্ত কমিটি গতকাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং নিহত তনুর বাবার সঙ্গে কথা বলেছে। কমিটির সদস্য সহযোগী অধ্যাপক ডা. করুণা রানী কর্মকার ও প্রভাষক ডা. ওমর ফারুক তাঁর সঙ্গে ছিলেন। তাঁরা ময়নাতদন্তের অংশ হিসেবেই নিহতের পরিবার সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং ঘটনাস্থল ঘুরে দেখেছেন বলে জানান।

তনুর বাবা এয়ার হোসেন বলেন, ‘চিকিৎসকরা আমাদের কাছে এসেছিলেন। তাঁরা জানতে চেয়েছেন—তনু কখন বাসা থেকে গেছে, কখন ও কী অবস্থায় লাশ পাওয়া গেছে, পোশাক কী অবস্থায় ছিলসহ বিভিন্ন তথ্য। এ সময় মামলার প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সাইফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। ’

ছাত্র ইউনিয়নের পদযাত্রা : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি জানান, তনু হত্যায় জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবিতে ছাত্র ইউনিয়ন গতকাল বিক্ষোভ মিছিল ও পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করেছে। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে শাহবাগের দিকে যেতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। সেখানে ধস্তাধস্তির ঘটনাও ঘটে। ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি লাকী আক্তার জানান, ২ এপ্রিল বিকেল ৪টায় রাজু ভাস্কর্যে সংগঠনটির প্রীতিলতা ব্রিগেড সেলের উদ্যোগে লাঠি মিছিল করা হবে।

এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে ও হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবিতে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে ক্যাম্পাসে একটি মৌন মিছিল বের করা হয়।

বরিশালে মশাল মিছিল : বরিশাল অফিস জানিয়েছে, বরিশালে বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে গতকাল মশাল মিছিল ও মানববন্ধন করা হয়েছে। দুপুর ১২টায় বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন কলেজের উত্তরণ সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে একটি মশাল মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সকাল সাড়ে ১১টায় বিএম কলেজ ক্যাম্পাসে তনু ধর্ষণ ও হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন ছাত্রমৈত্রী ও সংস্কৃতি পরিষদের নেতারা। সরকারি বরিশাল কলেজের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসের সামনের সড়কে মানববন্ধন করেছে। অন্যদিকে সকাল ১১টায় নগরের অশ্বিনী কুমার হলের সামনে মানববন্ধন করেছেন বরিশাল জেলা ও মহানগর জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের নেতারা।


মন্তব্য