kalerkantho


রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে রিটের ওপর শুনানি আজ

হরতাল জামায়াতের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে রিটের ওপর শুনানি আজ

ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম করে সংবিধান সংশোধনের (অষ্টম সংশোধনী) বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ২৮ বছর আগে দায়ের করা একটি রিট আবেদনের ওপর শুনানির জন্য হাইকোর্টে আজ সোমবার দিন ধার্য রয়েছে। এর প্রতিবাদে আজ সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকে বিবৃতি দিয়েছে জামায়াতে ইসলামী।

হাইকোর্টের বিচারপতি নাঈমা হায়দারের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বৃহত্তর বেঞ্চে রুলের শুনানি হবে। বেঞ্চের অন্য দুই সদস্য হলেন বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল।

১৯৮৮ সালের ৫ জুন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামলে সংবিধানের অষ্টম সংশোধনীতে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম করে জাতীয় সংসদে আইন পাস করা হয়। ওই বছরের ৯ জুন রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের মধ্য দিয়ে তা আইনে পরিণত হয়। এর দ্বিতীয় অনুচ্ছেদে যুক্ত ২(ক) দফায় বলা হয়, ‘প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম হবে ইসলাম, তবে অন্যান্য ধর্মও প্রজাতন্ত্রে শান্তিতে পালন করা যাইবে। ’

ধর্মনিরপেক্ষ দেশ হিসেবে ১৯৭১ সালে যাত্রা শুরু করা বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় মূলনীতিতে এই পরিবর্তনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে তখনই হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন ‘স্বৈরাচার ও সাম্প্রদায়িকতা প্রতিরোধ কমিটির’ পক্ষে সাবেক প্রধান বিচারপতি কামাল উদ্দিন হোসেন, কবি সুফিয়া কামাল, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীসহ ১৫ বিশিষ্ট নাগরিক। রিট আবেদনটির নম্বর ১৪৩৪। এ ছাড়া একই বিষয়ে নারী পক্ষও পৃথক একটি রিট করে। পরে হাইকোর্ট এ বিষয়ে রুল জারি করেন।

এ রুলের ওপর চূড়ান্ত শুনানির জন্য আজ হাইকোর্টে দিন ধার্য রয়েছে।

হরতাল আহ্বান জামায়াতের : আজ সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ঘোষণা করে গতকাল দুপুরে গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠায় জামায়াত। বিবৃতিতে দলটির ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান বলেন, ‘জনগণের পক্ষ থেকে এমন কোনো দাবি ওঠেনি যে সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিল করতে হবে। যেসব ব্যক্তি রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম থাকলে সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে যুক্তি দেখাচ্ছেন তা মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। বাংলাদেশে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম থাকার পরও এ দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রয়েছে। বাংলাদেশে কখনো সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হয় না। ’

এদিকে সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বহালের দাবিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ গতকাল বিভিন্ন জেলায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বলে সংগঠনটির এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।


মন্তব্য