kalerkantho

26th march banner

রিজার্ভের অর্থ চুরি

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ চার সংস্থায় গভর্নরের চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ চার সংস্থায় গভর্নরের চিঠি

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে চুরি যাওয়া অর্থ উদ্ধারে সহযোগিতা চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেম ও জাতিসংঘে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতসহ চারটি সংস্থায় চিঠি পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। গভর্নর ফজলে কবির যোগদানের পর ওই চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে গতকাল রবিবার সাংবাদিকদের জানান বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক শুভঙ্কর সাহা।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেমের বোর্ড অব গভর্ন্যান্সের চেয়ারপারসন জেনেট ইয়েলেন, জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন, ফিলিপাইনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ব্যাংকো সেন্ট্রাল এনজি ফিলিপিন্সের গভর্নর আমানদো এম তেতাংকো জুনিয়র ও ফিলিপাইনের অ্যান্টি মানি লন্ডারিং কাউন্সিলের প্রধান জুলিয়া সি বেকি-আবাদকে এ চিঠি পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে কী বলা হয়েছে, সে বিষয়ে জানতে চাইলে শুভঙ্কর সাহা বলেন, সম্প্রতি পাঠানো এ চিঠিতে অর্থ উদ্ধারে একটি কার্যকর পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করা হয়েছে। এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগের মাধ্যমে অর্থ উদ্ধারের প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। তিনি আরো বলেন, ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্ক থেকে কোন প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ চুরি করা হয়েছে, তার ব্যাখ্যা চেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসওম্যান ক্যারেলিন বি ম্যালোনি।

শুভঙ্কর সাহা বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের সব মহাব্যবস্থাপক ও তদূর্ধ্ব কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরিচিতিমূলক একটি সৌজন্য বৈঠক করেছেন গভর্নর। এ সময় তিনি কর্মকর্তাদের আইটি নিরাপত্তা বাড়ানোর বিষয়ে জোর দিতে বলেছেন। এ ধরনের ঘটনা প্রতিরোধে যেসব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের যে ম্যানুয়াল নিয়মনীতি রয়েছে সে অনুযায়ী কাজ করে জনগণের আস্থা অর্জনের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

এদিকে রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, ‘বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে অর্থ চুরির ঘটনায় সিআইডি জোরেশোরে তদন্ত করছে। ইতিমধ্যে আমরা অনেক ক্লু পেয়েছি। আশা করি অল্প সময়ের মধ্যে সুখবর দিতে পারব। মামলাটি তদন্তাধীন হওয়ার এর চেয়ে বেশি কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না। ’ র‌্যাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল র‌্যাব হেডকোয়ার্টারে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, গত ৪ ফেব্রুয়ারি রাতে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে রাখা বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব থেকে ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার হাতিয়ে নেয় একটি চক্র। এর মধ্যে শ্রীলঙ্কায় পাচার হওয়া দুই কোটি ডলার উদ্ধার হয়েছে। ফিলিপাইনে পাচার হওয়া আট কোটি ১০ লাখ ডলার উদ্ধারের প্রক্রিয়া চলছে।

এ ঘটনা বেশ কিছু দিন চেপে রাখায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে গত ১৫ মার্চ গভর্নরের পদ থেকে সরে দাঁড়ান ড. আতিউর রহমান।

 


মন্তব্য