kalerkantho


নির্বাচন-পরবর্তী সংঘর্ষে পুলিশসহ ৪১ জন আহত

আহত একজনের মৃত্যু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নির্বাচন-পরবর্তী সংঘর্ষে পুলিশসহ ৪১ জন আহত

প্রথম দফায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা আরো বাড়ছে। গতকাল বৃহস্পতিবারও বিভিন্ন স্থানে বিজয়ী ও পরাজিত প্রার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ, হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের খবর পাওয়া গেছে। এসব ঘটনায় পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ৪১ জন আহত হয়। এর মধ্যে ফের ভোট গণনাকে কেন্দ্র করে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সদর থানার ওসিসহ ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এদিকে দ্বিতীয় দফা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কয়েক স্থানে সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

অন্যদিকে ২১ মার্চ রাতে পটুয়াখালীর দশমিনার বহরমপুর ইউনিয়নে সহিংসতায় আহত বিএনপির কর্মী জাহাঙ্গীর হোসেন মারা গেছেন। গতকাল ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি মারা যান। বিস্তারিত বিভিন্ন স্থান থেকে পাঠানো আমাদের আঞ্চলিক অফিস, নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধির পাঠানো খবরে—

প্রথম দফা নির্বাচন-পরবর্তী সহিসংসতা : পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় গতকাল দুপুরে পরাজিত আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের হামলায় সদর থানার ওসিসহ ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ সময় তারা ইউএনও অফিসের ফটক ভাঙচুর করে। জানা যায়, নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর তিরনই হাট ইউনিয়নে পরাজিত আওয়ামী লীগ প্রার্থী তাহমিদ মিল্টন ফের ভোট গণনার দাবি জানান। এ নিয়ে গতকাল প্রায় ২০০ কর্মী-সমর্থকের মিছিল নিয়ে উপজেলা পরিষদে বিক্ষোভ করে।

নির্বাচন কর্মকর্তা আইনগত পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে সবাইকে শান্ত হতে বলেন। কিন্তু উত্তেজিত কর্মী-সমর্থকরা ইউএনও অফিসের অফিসার্স ক্লাবের দুটি কাচের জানালা ভাঙচুর করে।

সিরাজদিখান উপজেলার বালুরচর ইউনিয়নের রাজনগর ও ছোট মধ্যনগর গ্রামে গতকাল সকালে বিজয়ী ও পরাজিত দুই মেম্বার প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পাঁচজন টেঁটাবিদ্ধ হয়েছে। এ সময় বিজয়ী মেম্বার সমর্থক আফজাল হোসেনের বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়েছে। আহতদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও বক্ষব্যাধি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

সিরাজগঞ্জ রায়গঞ্জে চান্দাইকোনা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বিজয়ী সদস্যের নেতৃত্বে পরাজিত সদস্যের বাড়িতে হামলা চালিয়ে বসতবাড়ি ভাঙচুর ও লটুপাট করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় অন্তত ১৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গতকাল দুপুরে জলাগাতি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। পরাজিত সদস্য প্রার্থী শরিফুল ইসলামের অভিযোগ, নির্বাচনে বিজয়ী হয়েও দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ইউপি সদস্য মোশারফ হোসেনের লোকজন আমার বাড়িতে হামলা চালায়।

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির বলদিয়ায় মিজানুর রহমান হাসিব নামের এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে বিএনপিদলীয় বিজয়ী চেয়ারম্যান শাহীন আহম্মেদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে বেদম মারধর করেছে তাঁর সমর্থকরা। গতকাল সকালে হাসিবের অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বুধবার রাত পৌনে ১১টায় চেয়ারম্যান মো. শাহীন আহম্মেদের বলদিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

যশোরের মণিরামপুরে খেদাপাড়া ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামে নৌকা প্রতীকের কর্মী আব্দুল হান্নানের বাড়িতে বোমা হামলা হয়েছে। এতে সালেহা খাতুন নামের এক গৃহবধূসহ চারজন আহত হয়েছে। অন্যদিকে ওই ইউনিয়নের মাহমুদকাটি ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য প্রার্থী রবিউল ইসলাম ও তাঁর কর্মী হোসেন আলী প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে।

খুলনায় নির্বাচনোত্তর সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে। ডুমুরিয়া উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নে নির্বাচনোত্তর সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে। বুধবার রাত এবং বৃহস্পতিবার সকালে একাধিক ঘটনায় কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। আর ২২ মার্চ রাত থেকে শরাফপুর ইউনিয়নে চলেছে ব্যাপক তাণ্ডব। এ ছাড়া কয়রা উপজেলার সদর ইউনিয়নে বিজয়ী প্রার্থীর হামলায় সাংবাদিকসহ ৯ জন আহত হয়েছে।

দ্বিতীয় দফা নির্বাচন কেন্দ্র করে সংঘর্ষ গতকাল দুপুরে মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগরের কুকুটিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নেতাকর্মীরা বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর ও ককটেল বিস্ফোরণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে তন্তর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নেতাকর্মীরা বিদ্রোহী প্রার্থীর এক কর্মীকে কুপিয়ে জখম করেছে। অন্যদিকে হাসাড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর লোকজনের হামলায় আহত হয়েছে দুই কর্মী। পৃথক এ হামলায় কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ মুছাপুর ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থী নুুরুল আলম সিকদারের গণসংযোগে হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে নুুরুল আলম সিকদারসহ পাঁচ কর্মী-সমর্থক আহত হয়েছে। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। হামলার জন্য আওয়ামী লীগ সমর্থিত নেতাকর্মীদের দায়ী করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় ইউনিয়নের মৌলভীবাজার নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।


মন্তব্য