kalerkantho

১০ পৌরসভার নির্বাচন

একচেটিয়া আ. লীগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



একচেটিয়া আ. লীগ

দশটি পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে সব কয়টিতে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা। গতকাল রবিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত পৌরসভাগুলোতে ভোটগ্রহণ হয়।

পরে ভোট গণনা শেষে ফল ঘোষণা করা হয়। সংশ্লিষ্ট পৌরসভার রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার তথ্যের ভিত্তিতে কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) : মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আবদুল মালেক ১০ হাজার ৯৩৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন ওরফে নয়ন পেয়েছেন এক হাজার ১২৯ ভোট। আর বিএনপির প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম পেয়েছেন ৫২৭ ভোট। কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হয়েছেন—১ নম্বর ওয়ার্ডে মোশারফ হোসেন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে আখতারুজ্জামান, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে রেয়াজুল হক, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে এমরান হোসেন বাহার, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে সেলিম জাহাঙ্গীর, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সাদেক হোসেন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে আলাউদ্দিন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে নিজাম উদ্দিন ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মহিন উদ্দিন ভূঁইয়া। সংরক্ষিত ১ নম্বর ওয়ার্ডে সাবিনা ইয়াসমিন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে খুরশিদা বেগম ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ছালেহা বেগম কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন।

সোনাগাজী (ফেনী) : মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী রফিকুল ইসলাম খোকন জয়লাভ করেছেন। তিনি আট হাজার ৯৯৪ ভোট পেয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামাল উদ্দিন সেন্টু পেয়েছেন ৮৫০ ভোট।

কবিরহাট (নোয়াখালী) : মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জহিরুল হক পাঁচ হাজার ৩৭৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মোস্তাফিজুর রহমান মঞ্জু পেয়েছেন দুই হাজার ২৪০ ভোট। এখানে দুটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এর ভোটার সংখ্যা তিন হাজার ১৯। তবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তিন হাজার ১৩৪ ভোটের ব্যবধানে জয়ী হওয়ায় স্থগিত দুই কেন্দ্রে মেয়র পদে ভোটগ্রহণের দরকার হবে না। সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও কবিরহাট পৌরসভার রিটার্নিং অফিসার মো. মনিরুজ্জামান এ তথ্য জানান।

চকরিয়া (কক্সবাজার) : চকরিয়ায় মেয়র পদে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আলমগীর চৌধুরী। তাঁর প্রাপ্ত ভোট ২৮ হাজার ৩৫২। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী নুরুল ইসলাম হায়দার পেয়েছেন আট হাজার ৮৪৫ ভোট। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১-২-৩ নম্বর ওয়ার্ডে রাশেদা বেগম, ৪-৫-৬ নম্বর ওয়ার্ডে রাজিয়া সুলতানা খুকুমণি ও ৭-৮-৯ নম্বর ওয়ার্ডে সজরুন্নাহার বুলু নির্বাচিত হয়েছেন। সাধারণ কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হয়েছেন ১ নম্বর ওয়ার্ডে মছুদুল হক মধু, ২ নম্বর ওয়ার্ডে রেজাউল করিম, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর বশিরুল আইয়ুব, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে জাফর আলম কালু, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ফোরকানুল ইসলাম তিতু, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে জিয়াবুল হক, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে জামাল উদ্দিন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে মুজিবুল হক ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে নজরুল ইসলাম।

মহেশখালী (কক্সবাজার) : আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী মকসুদ মিয়া আট হাজার ৪৩০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী একই দলের বিদ্রোহী মেয়র পদপ্রার্থী সরওয়ার আজম পেয়েছেন ছয় হাজার ৪৯৬ ভোট।

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : আওয়ামী লীগের প্রার্থী মকসেদ আলী ১২ হাজার ১২৮ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মাসুদুর রহমান মন্টু পেয়েছেন আট হাজার ১১২ ভোট।

ভাঙ্গা (ফরিদপুর) : মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এ এস এম ডি রেজা ফয়েজ ১০ হাজার ৩০৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু জাফর মুন্সি সাত হাজার ২২৫ ভোট ও বিএনপির প্রার্থী ওয়াহিদুজ্জামান ৭৬০ ভোট পেয়েছেন।

ঝালকাঠি : আওয়ামী লীগ মেয়র পদপ্রার্থী লিয়াকত আলী তালুকদার ১৭ হাজার ২২০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আফজাল হোসেন এক হাজার ৯১৪ ভোট ও বিএনপির প্রার্থী অনাদি দাস ৭৯৭ ভোট পেয়েছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী নায়ার কবির ৬০ হাজার ১৬৭ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী হাফিজুর রহমান পেয়েছেন সাত হাজার ৩২৮ ভোট। এ ছাড়া ইসলামী ঐক্যজোটের মো. ইউসুফ ভূঁইয়া ছয় হাজার ৮৭৫, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. সিরাজুল ইসলাম ভূঁইয়া এক হাজার ৫৮৬ ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী আনিছ খান ৭৩৭ ভোট পেয়েছেন।

হারাগাছ (রংপুর) : আওয়ামী লীগের মেয়র পদপ্রার্থী হাকিবুর রহমান মাস্টার ১২ হাজার ২৪২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী মোনায়েম হোসেন পেয়েছেন ১০ হাজার ৮৪ ভোট।


মন্তব্য