kalerkantho


মাহমুদ আলীকে ফিলিপ হ্যামন্ডের ফোন

কার্গো নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার বিবেচনার আশ্বাস যুক্তরাজ্যের

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



কার্গো নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার বিবেচনার আশ্বাস যুক্তরাজ্যের

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে গতকাল শুক্রবার রাতে টেলিফোনে কথা বলেছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফিলিপ হ্যামন্ড। সে সময় বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে সরাসরি ফ্লাইটে কার্গো নিষেধাজ্ঞার পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকায় গৃহীত নানা উদ্যোগ নিয়ে আলোচনা হয়। এ সময় ঢাকা থেকে সরাসরি লন্ডনগামী কার্গোর ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়টি বিবেচনার আশ্বাস দেন তিনি।

টেলিকথনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী বলেন, ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তাব্যবস্থার উন্নয়নে ‘রেললাইন’ ও ‘রেস্ট্রাটা’ নামে দুটি ব্রিটিশ কম্পানির সঙ্গে চুক্তির বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে এবং শিগগিরই কোনো একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ওই চুক্তি চূড়ান্ত হবে। ব্রিটিশ মন্ত্রী আশ্বাস দিয়ে বলেন, যুক্তরাজ্য শিগগিরই ঢাকা থেকে সরাসরি লন্ডনগামী কার্গো পরিবহনের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করবে। ঢাকা-লন্ডন সরাসরি যাত্রীবাহী ফ্লাইট চলাচলে এর কোনো প্রভাব পড়বে না।

প্রসঙ্গত, ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ত্রুটির অজুহাতে এ মাসের শুরুতে ব্রিটিশ সরকার বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্যগামী সরাসরি ফ্লাইটে কার্গো পরিবহন নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল শুক্রবার রাত ১১টা ৫৮ মিনিটে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফিলিপ হ্যামন্ড গতকাল রাত সাড়ে ৯টায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীকে টেলিফোন করেন। দুই মন্ত্রী ঢাকায় বিমানবন্দরের নিরাপত্তাব্যবস্থা নিয়ে কথা বলেন।   আবুল হাসান মাহমুদ আলী শাহজালাল বিমানবন্দরের নিরাপত্তাব্যবস্থা উন্নয়নে বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্য একযোগে কাজ করে যাচ্ছে বলে ব্রিটিশ মন্ত্রীকে অবহিত করেন। ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহজালাল বিমানবন্দরের নিরাপত্তাব্যবস্থার উন্নয়নে বাংলাদেশের গৃহীত উন্নয়ন পরিকল্পনাকে স্বাগত জানান।


মন্তব্য