kalerkantho


কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে বিএনপি জেগে উঠবে : ফখরুল

বিলম্বে রিজার্ভ চুরির মামলা রহস্যজনক : রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে বিএনপি জেগে উঠবে : ফখরুল

জাতীয় কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে অদম্য দল হয়ে আবারও জেগে উঠবে বিএনপি—এমন প্রত্যাশা দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের। গতকাল বুধবার বিএনপির প্রয়াত মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের স্মরণসভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনার ৪০ দিন পর মামলা দায়েরের ঘটনাকে রহস্যজনক বলে উল্লেখ করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহল কবীর রিজভী।

পুরানা পল্টনে ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে স্মরণসভার আয়োজন করে খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন স্মৃতি পরিষদ। সভায় আসন্ন জাতীয় কাউন্সিল আয়োজনে নানা বাধাবিপত্তির উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, যতবারই বিএনপিকে ধ্বংস করার চেষ্টা হয়েছে ততবারই ধ্বংসস্তূপ থেকে দলটি ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠেছে। আগামী শনিবার বিএনপির জাতীয় কাউন্সিল। বিভিন্ন বাধাবিপত্তি উপেক্ষা করে অদম্য আগ্রহ-উৎসাহ নিয়ে দলের তৃণমূল পর্যায়ের নেতারা পর্যন্ত এই কাউন্সিল সফলের চেষ্টা করছেন। এতেই প্রমাণিত হয়, বিএনপি এ দেশের মানুষের রাজনৈতিক দল, বিএনপি অদম্য দল। নির্যাতন করে, নিপীড়ন করে এই দলকে ধ্বংস করা যাবে না।

পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রয়াত মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ারের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ফখরুল বলেন, ‘তাঁর যে চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য ছিল তা থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে। আজীবন তিনি ছিলেন একজন সংগ্রামী মানুষ, সৎ মানুষ। অত্যন্ত বিজ্ঞ, রাজনীতিতে পোড়খাওয়া মানুষটি আমাদের স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়ে গেছেন, জনগণের সঙ্গে থাকার বিকল্প নেই। ’ পরে প্রয়াত দেলোয়ারের জীবন ও কর্মের ওপর ‘শ্রদ্ধাঞ্জলি’ নামে একটি গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন তিনি।

নূতন মাত্রার সম্পাদক কবি আল মুজাহিদীর সভাপতিত্বে স্মরণসভায় অন্যদের মধ্যে অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ, সেলিমা রহমান, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খোন্দকার দেলোয়ারের ছেলে ড. খোন্দকার আকবর হোসেন বাবুল, শামীমুর রহমান শামীম, নুরী আরা সাফা, শিরিন সুলতানা, আনোয়ার হোসাইন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

‘রিজার্ভ চুরির ৪০ দিন পর মামলা দায়ের রহস্যজনক’ : বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ অভিযোগ করে বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের বিপুল অর্থ লোপাটের ঘটনায় ক্ষমতাসীন গোষ্ঠীর উচ্চপর্যায়ের ব্যক্তিরা যে জড়িত তা আজ জাতির কাছে একেবারেই সুস্পষ্ট। ঘটনা ঘটার ৪০ দিন পর অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এটি অত্যন্ত রহস্যজনক। প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন, তাহলে কি অপরাধীদের পার করে দেওয়ার চেষ্টা করছে সরকার?

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮০০ কোটি টাকা ভেলকিবাজির মতো বাতাসে মিলিয়ে যাওয়ার ঘটনায় দেশে-বিদেশে যখন আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে, ঠিক সেই মুহূর্তে তিতাস গ্যাসের তিন হাজার ১০০ কোটি টাকা লোপাটের মতো চাঞ্চল্যকর ঘটনা পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। আসলে সারা দেশ এখন লুটপাটের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার আগে তারা দেদার জনগণের টাকা আত্মসাৎ করছে, যাতে পালানোর মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে এই টাকাগুলো তাদের কাজে লাগে।

গতকাল নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব কথা জানান। তিনি বলেন, ‘বিএনপির ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল কোথায় অনুষ্ঠিত হবে এ নিয়ে অনেকেই কথা বলছেন। আমরা পরিষ্কার করে বলতে চাই, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণেই কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। ’

মহানগর নাট্যমঞ্চ ব্যবহারের অনুমতি পেলেও রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনেই বিএনপির কাউন্সিল হবে বলে জানান রিজভী। এ জন্য ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন-সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের একাংশ তাঁরা ব্যবহার করতে চান বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

রিজভী বলেন, ‘ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে কাউন্সিলের জন্য পুলিশের অনুমতির চিঠি গতকাল (মঙ্গলবার) আমাদের হাতে এসেছে। তবে সুশৃঙ্খল ও সুষ্ঠুভাবে কাউন্সিল সম্পন্নের লক্ষ্যে আমরা এখনো ইনস্টিটিউশন-সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী মাঠের একটি অংশের অনুমতির অপেক্ষায় আছি। ’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, আব্দুল লতিফ জনি, এ বি এম মোশাররফ হোসেন, আমিনুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য