kalerkantho

একরাম হত্যাকাণ্ড

বিচার শুরু

ফেনী প্রতিনিধি   

১৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বিচার শুরু

প্রায় দুই বছর আগে ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একরামুল হক একরাম হত্যার আলোচিত ঘটনায় করা মামলার অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার জেলা ও দায়রা জজ দেওয়ান মোহাম্মদ সফিউল্যাহ এ মামলার ৫৬ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন।

আগামী ১২ এপ্রিল থেকে মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হবে। এর আগে তিন দফা অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছানো হয়।

সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) হাফেজ আহাম্মদ জানান, গতকাল ৫৬ আসামির মধ্যে ৪৪ জনকে আদালতে হাজির করা হয়। ঢাকা থেকে মামলার প্রধান অভিযুক্ত বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনারকেও নিয়ে আসা হয়। দুপুর ১২টার দিকে পুলিশ পাহারায় তাদের আদালতে আনা হয়।

আসামিপক্ষের আইনজীবী আহসান কবির বেঙ্গল জানান, তাঁরা ১৫ আসামিকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন। কিন্তু বিচারক আবেদন নাকচ করে দেন।

সরকারি কৌঁসুলি হাফেজ জানান, এ মামলায় গ্রেপ্তার ৪৪ আসামির মধ্যে চারজন জামিনে রয়েছে। পলাতক রয়েছে ১২ জন। কুমিল্লা কারাগারে আছে ছয়জন। এ ছাড়া একজন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এবং ৩৩ জন ফেনী জেলা কারাগারে আছে।

২০১৪ সালের ২০ মে ফেনী সদরের একাডেমি এলাকায় তৎকালীন বিলাসী সিনেমা হলের সামনে ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একরামুল হক একরামকে গুলি করে ও পুড়িয়ে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় একরামের ভাই রেজাউল হক ওরফে জসিম বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। এ মামলায় ৩৬ জনকে আসামি করা হয়।

গত বছর ২৮ আগস্ট মোট ৫৬ জন আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। তাদের মধ্যে একমাত্র বিএনপি নেতা মিনার চৌধুরী ছাড়া বাকিরা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। গ্রেপ্তার করা ৪৪ জনের মধ্যে ১৬ জন হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সঙ্গে কোনো না কোনোভাবে জড়িত থাকার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে।

এর আগে গত ১১ জানুয়ারি, ১০ ফেব্রুয়ারি ও ২৯ ফেব্রুয়ারি মামলার অভিযোগ গঠনের তারিখ ধার্য থাকলেও সব আসামি আদালতে উপস্থিত না থাকায় অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছানো হয়।


মন্তব্য