kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


গাছচাপায় চিত্রনির্মাতা মিঠুর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



গাছচাপায় চিত্রনির্মাতা মিঠুর মৃত্যু

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী পরিচালক চিত্রশিল্পী খালিদ মাহমুদ মিঠু মারা গেছেন। গতকাল রাজধানীর ধানমণ্ডিতে গাছের নিচে চাপা পড়ে তাঁর মৃত্যু হয়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, গতকাল সোমবার দুপুর ২টার দিকে খালিদ মাহমুদ মিঠু তাঁর ধানমণ্ডির বাসা থেকে বেরিয়ে রিকশায় করে কাজে যাচ্ছিলেন। পথে রিকশাটির ওপর একটি গাছ আছড়ে পড়লে তিনি  গুরুতর আহত হন। দ্রুত তাঁকে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত  চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ধানমণ্ডি থানার ওসি নূরে আজম মিয়া কালের কণ্ঠকে বলেন, ধানমণ্ডির ৪ নম্বর সড়ক দিয়ে রিকশায় করে যাওয়ার সময় একটি বড় গাছ ভেঙে তাঁর ওপর পড়ে। আগের রাতে ঝড়-বৃষ্টির কারণে হয়তো গাছটির গোড়া আলগা হয়ে ছিল। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে নেওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি জানান, অল্পের জন্য রিকশাচালক বেঁচে যান, তিনি সামান্য আহত হন। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ওসি বলেন, দুর্ঘটনায় তাঁর মৃত্যুর বিষয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। বরেণ্য চিত্রশিল্পীর মৃতদেহ ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরিবারের কাছে দেওয়া হয়েছে।

খালিদ মাহমুদ মিঠুর জন্ম ১৯৬০ সালে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউট থেকে ১৯৮৬ সালে এমএফএ ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। ২০০৭ সালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত ১৬তম জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনীতে ‘আরব-বাংলাদেশ ব্যাংক পুরস্কার’ পান তিনি। তাঁর প্রথম চলচ্চিত্র ‘গহীনে শব্দ’ মুক্তি পায় ২০১০ সালের ২৬ মার্চ। ওই বছরই শ্রেষ্ঠ পরিচালক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি। ছবিটি চারটি ক্যাটাগরিতে সেরা পুরস্কার জিতে নেয়। কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে একটি বইও লিখেছেন তিনি।

খালিদ মাহমুদ মিঠুর স্ত্রী চিত্রশিল্পী কনকচাঁপা চাকমা। বিকেল ৪টার দিকে মিঠুর লাশ ধানমণ্ডির বাসায় নেওয়া হয়। তাঁর স্ত্রীকে দ্রুত বাসায় যেতে বলা হয়। গুলশানের কর্মস্থল থেকে বাসায় ফিরে স্বামীর লাশ দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

মৃত্যুর খবর পেয়ে সহকর্মী, বন্ধু ও স্বজনরা ছুটে যান মিঠুর বাসায়। শোকের ছায়া নামে সংস্কৃতি অঙ্গনে। চ্যানেল আইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, বার্তাপ্রধান ও পরিচালক শাইখ সিরাজ, চিত্রনির্মাতা মোরশেদুল ইসলাম, তারকা দম্পতি তৌকীর আহমেদ ও বিপাশা হায়াত, অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচীসহ আরো অনেকে ধানমণ্ডির বাসায় যান এবং পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।

মিঠু ও কনকচাঁপার একমাত্র ছেলে আর্য শ্রেষ্ঠ ইংল্যান্ডে আছেন। বাবার মৃত্যুর খবর দেওয়া হয়েছে তাঁকে। তিনি ঢাকায় আসার পর লাশ দাফন করা হবে। তত দিন লাশ বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে।

শোক প্রকাশ : চলচ্চিত্রকার ও চিত্রশিল্পী খালিদ মাহমুদ মিঠুর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, প্রথম ছবি ‘গহীনে শব্দ’ পরিচালনায় খালিদ মাহমুদ যে মেধার স্বাক্ষর রেখেছেন তা ভোলার নয়। মিঠু বেঁচে থাকবেন তাঁর সৃষ্টিকর্মে। মন্ত্রী তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।

তথ্যসচিব মরতুজা আহমদও খালিদ মাহমুদ মিঠুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন।


মন্তব্য