খালেদা ও তারেক বিনা-333063 | শেষের পাতা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১০ আশ্বিন ১৪২৩ । ২২ জিলহজ ১৪৩৭


খালেদা ও তারেক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



খালেদা ও তারেক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত

বিএনপির চেয়ারপারসন পদে খালেদা জিয়া এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদে তারেক রহমান আবারও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এ দুই শীর্ষ নেতৃত্ব পদে আর কেউ মনোনয়নপত্র না নেওয়ায় গতকাল রবিবার বিকেলে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সময় শেষ হওয়ার পর কাউন্সিল ঘিরে গঠিত নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার এক সংবাদ সম্মেলনে এই ফল ঘোষণা করেন।

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে জমিরউদ্দিন সরকার বলেন, চেয়ারপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের জন্য যথাক্রমে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান একক বৈধ প্রার্থী হওয়ায় নির্বাচন কমিশন খালেদা জিয়াকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিএনপির চেয়ারম্যান এবং তারেক রহমানকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদে আগামী তিন বছরের জন্য নির্বাচিত ঘোষণা করছে।

ফল ঘোষণা করে জমিরউদ্দিন সরকার আরো বলেন, নির্বাচনের এই ফল দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য ১৯ মার্চ অনুষ্ঠেয় বিএনপির জাতীয় কাউন্সিলে পেশ করা হবে।সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জমিরউদ্দিন সরকার জানান, অত্যন্ত স্বচ্ছ ও নিয়মতান্ত্রিকভাবে নির্বাচনপ্রক্রিয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। পুরো প্রক্রিয়া গণমাধ্যমের সামনে হয়েছে।

এ সময় তাঁর পাশে রিটার্নিং অফিসার দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান এবং চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুুল মান্নান উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া নির্বাচন কমিশনের সদস্যসচিব ব্যারিস্টার আমিনুল হক ও সদস্য হারুন আল রশিদ, খালেদা জিয়ার নির্বাচনী এজেন্ট দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী এবং তারেক রহমানের নির্বাচনী এজেন্ট যুগ্ম মহাসচিব মো. শাহজাহান উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্ত্রী খালেদা জিয়া ১৯৮৪ সাল থেকেই দলটির চেয়ারপারসনের দায়িত্বে রয়েছেন। ছয় বছর আগে ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে দলের সর্বশেষ কাউন্সিলে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদ সৃষ্টি করে সেই দায়িত্ব দেওয়া হয় তাঁদের বড় ছেলে তারেক রহমানকে। এই পদে নির্বাচনের বিধান দলের গঠনতন্ত্রে ছিল না। গত ১০ ফেব্রুয়ারি দলের স্থায়ী কমিটির সভায় গঠনতন্ত্র সংশোধন করে বিষয়টি যুক্ত করা হয়।

খালেদাকে নেতাকর্মীদের অভিনন্দন : পুনরায় চেয়ারপারসন নির্বাচিত হওয়ায় খালেদা জিয়াকে তাঁর দলের নেতাকর্মীরা অভিনন্দন জানিয়েছে। গতকাল রাতে গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ শুভেচ্ছা জানানো হয়। এ সময় দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল আউয়াল মিন্টু, প্রফেসর এমাজউদ্দীন আহমদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়াকে অভিনন্দন জানানো হয় বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

মন্তব্য