রাজশাহীতে সড়ক দখল করে যুবলীগের-332701 | শেষের পাতা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০১৬। ১৬ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৮ জিলহজ ১৪৩৭


রাজশাহীতে সড়ক দখল করে যুবলীগের সম্মেলন

নগরজুড়ে ব্যানার, তোরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রাজশাহীতে সড়ক দখল করে যুবলীগের সম্মেলন

রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সম্মেলন হচ্ছে ব্যস্ত রাজপথে। এ জন্য মঞ্চ তৈরি করতে গিয়ে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয় নগরের আলুপট্টি থেকে কুমারপাড়া পর্যন্ত সড়ক। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজশাহীতে সড়ক দখল করে মহানগর যুবলীগের সম্মেলন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে এ সম্মেলন হয়েছে নগরীর আলুপট্টি মোড়ের তালাইমারী-কোর্ট সড়কে। এতে করে নগরীজুড়ে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। ভোগান্তির শিকার হয় সাধারণ মানুষ।

এদিকে যুবলীগের সম্মেলনকে ঘিরে নগরীর দেয়ালে দেয়ালে হাজার হাজার পোস্টার লাগানো হয়েছে। লাগানো হয়েছে ব্যানার। ভাস্কর্যের গায়েও পোস্টার সাঁটানো হয়। তৈরি করা হয়েছে অর্ধশতাধিক তোরণ।

প্রায় এক যুগ পর রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে আগের দিন শুক্রবার বিকেল থেকে নগরীর সাহেব বাজার-তালাইমারী সড়ক বন্ধ করে দিয়ে মঞ্চ তৈরির কাজ শুরু হয়। এতে ওই এলাকায় ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। ওই দিন বিকেলেই নগরীর আলুপট্টির মোড়ে এবং কুমারপাড়ার মোড়ে বাঁশ দিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়। রাস্তার ওপরে আড়াআড়ি করে টাঙানো বাঁশের সঙ্গে লাল ফিতা বেঁধে দেওয়া হয়। এতে করে সন্ধ্যার পর থেকেই নগরীজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়, যা গতকাল ভয়াবহ আকার ধারণ করে।

নগরীর ২৩ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি কদম আলী তাঁর নামে পুরো ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের অলিগলিতে ১৬টি তোরণ নির্মাণ করেন। এ ছাড়া হাজারখানেক ফেস্টুন, শখানেক ব্যানার এবং ১০টির মতো বিলবোর্ড লাগিয়েছেন তিনি। তাঁর মতো শতাধিক নেতা নগরীজুড়ে এভাবে ব্যানার, ফেস্টুন, বিলবোর্ড লাগিয়েছেন। নগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকার ভাস্কর্যসহ বিভিন্ন স্থানে আরো কয়েকটি ভাস্কর্য ঢাকা পড়ে গেছে এসব পোস্টার, ফেস্টুন ও ব্যানারে।

রিকশাযাত্রী হোসেন আলী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘এভাবে রাস্তা দখল করে রাজনৈতিক দলের সম্মেলন হবে, আর সাধারণ মানুষকে ভোগান্তিতে পড়তে হবে—তা হয় না। কিন্তু শাসকদলের রাজনৈতিক সংগঠনই সেটি করে সাধারণ মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলছে। ফলে সাধারণ মানুষের প্রতিবাদের জায়গাটাও হারিয়ে গেছে।’

ওই সড়কে আটকা পড়া সায়মা তাবাসসুম নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘এখানে রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে জানলে আমরা এই রাস্তায় ঢুকতাম না। এখন আর গাড়ি বের হচ্ছে না।’

এখানেই ভিড়ে আটকা পড়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফায়ার সার্ভিসের গাড়িও। গাড়িচালক বলেন, এই রাস্তা ছাড়া পার হওয়ার কোনো বিকল্প নেই। এখানে ঢুকেই বিপদে পড়েছেন। এখন আর পেছনের দিকেও যেতে পারছেন না, সামনের দিকেও এগোতে পারছেন না।

নগরীর বোয়ালিয়া থানার ওসি শাহাদত হোসেন বলেন, ‘যুবলীগের পক্ষ থেকে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের কাছে সম্মেলনের এই জায়গা ব্যবহারের জন্য আবেদন করা হয়েছিল। সিটি করপোরেশন অনুমতি দিয়েছে। তারপর পুলিশ কমিশনার দিয়েছেন। এ বিষয়ে আমাদের করার কিছু নেই।’

যুবলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। প্রধান বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মজিবর রহমান চৌধুরী ও আবদুস সাত্তার মাসুদ। এতে সভাপতিত্ব করেন নগর যুবলীগের সভাপতি রমজান আলী।

রাস্তায় সম্মেলন করার বিষয়ে জানতে চাইলে যুবলীগ নেতা রমজান আলী বলেন, ‘নেতাদের পছন্দ ছিল শিরোইল হাই স্কুল মাঠ। কিন্তু এসএসসি পরীক্ষার কারণে সেখানে করা যাচ্ছে না। বাধ্য হয়ে নগরীর আলুপট্টি মোড় ব্যবহারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনুমতি নেওয়া হয়েছে।’

মন্তব্য