সরকারি ক্রয় আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন-330722 | শেষের পাতা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৪ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৬ জিলহজ ১৪৩৭


সরকারি ক্রয় আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সরকারি ক্রয় আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

সীমিত দরপত্র পদ্ধতির (এলটিএম) আওতায় অভ্যন্তরীণ ক্রয়ের সীমা দুই কোটি থেকে বাড়িয়ে তিন কোটি টাকা করার বিধান রেখে সরকারি কেনাকাটাসংক্রান্ত ‘পাবলিক প্রকিউরমেন্ট (চতুর্থ সংশোধন) আইন, ২০১৬’-এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। দরপত্রে প্রাক্কলনের ১০ শতাংশ কমবেশি গ্রহণযোগ্য সীমা ধরে এ-সংক্রান্ত আইন সংশোধন করা হচ্ছে। তবে এর কমবেশি হলে দরপত্র বাতিল হয়ে যাবে।

গতকাল সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। পরে মন্ত্রিপরিষদসচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি জানান, উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতির (ওটিএম) আওতায় ক্রয়ের ক্ষেত্রে দাপ্তরিক প্রাক্কলিক মূল্য থেকে কম বা বেশি হারে মূল্য দেখানোর প্রবণতা রোধে আইনে সংশোধন আনা হচ্ছে। একজন দরদাতা দরপত্রের দাপ্তরিক প্রাক্কলনের ১০ শতাংশ কম বা বেশি মূল্য উল্লেখ করতে পারবেন। এর বেশি করলে দরপত্র বাতিল হয়ে যাবে। বুদ্ধিবৃত্তিক সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে কারিগরি ও আর্থিক প্রস্তাবের ওপর গুরুত্ব প্রদানে ঢালাওভাবে ৯০:১০ অনুপাত প্রয়োগের নিয়ন্ত্রণ আনা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে কখনো কখনো অনুপাতে কমবেশি করা হয়, এতে সরকারের আর্থিক ক্ষতি হয়। এ জন্য নিয়ন্ত্রণ আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে।

পেশাগত সনদ পাবেন ধাত্রীরাও

নার্সিং পেশার পাশাপাশি ধাত্রীবিদ্যায় (মিডওয়াইফারি) ডিগ্রিধারীদেরও পেশাগত সনদ দেবে সরকার। এ-সংক্রান্ত বিধান রেখে ‘বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিল আইন, ২০১৬’-এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সামরিক শামনামলে প্রণীত ‘বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিল অর্ডিন্যান্স ১৯৮৩’ রহিত করে কিছু সংশোধনীসহ এ আইন করা হচ্ছে। নতুন আইনে নার্সিংয়ের সঙ্গে ধাত্রীবিদ্যা (মিডওয়াইফারি) যুক্ত করা হচ্ছে। এ আইন পাস হলে ২৪ সদস্যের কাউন্সিল গঠন করা হবে। নার্সিং ও ধাত্রীবিদ্যায় যাঁরা ডিগ্রি নেবেন এই কাউন্সিল তাঁদের স্বীকৃতি দেবে। স্বীকৃতি ছাড়া নিজেকে নার্স, ধাত্রী বা সহযোগী পরিচয় দিলে তিন বছর কারদণ্ড, এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। এ ছাড়া ভুয়া পদবি ব্যবহার করলে এক বছরের কারাদণ্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

ফ্লাইটে নিরাপত্তা কর্মকর্তা থাকবেন

প্রতিটি ফ্লাইটে নিরাপত্তা কর্মকর্তা রাখার বিধান রেখে ‘বেসামরিক বিমান চলাচল আইন, ২০১৬’-এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যদের সহায়তা দেওয়া, বেসামরিক বিমান হিসেবে রাষ্ট্রীয় বিমানের ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টি করা হয়েছে খসড়া আইনে।

মন্তব্য