kalerkantho


ঝালকাঠিতে চুরির হিড়িক

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

১৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ঝালকাঠিতে তীব্র শীতে চুরির হিড়িক পড়েছে। গত তিন দিনে জেলার বিভিন্ন স্থানে ডজনখানেক চুরির খবর পাওয়া গেছে। হঠাৎ করে চুরি বেড়ে যাওয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। মাঝেমধ্যে ঘটছে ডাকাতির ঘটনাও। চোর-ডাকাত প্রতিহত করতে জেলার বিভিন্ন এলাকায় রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন গ্রামবাসী। কোথাও চুরি-ডাকাতির ঘটনা ঘটলে মসজিদের মাইক থেকে গ্রামবাসীকে জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া প্রশাসনের পক্ষ থেকে গ্রামবাসীকে সতর্কাবস্থায় থাকতে বলা হয়েছে।

জানা যায়, ঝালকাঠি শহরের ডাক্তারপট্টি এলাকার ছাত্তার টাওয়ারের তৃতীয় তলায় গত শনিবার রাতে চুরির ঘটনা ঘটে। বিকাশের কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান জানান, বিকাশের জেলা ডিস্ট্রিবিউট অফিসের ভোল্ট ভেঙে ২৭ হাজার টাকা ও মালপত্র চুরি করে নিয়ে গেছে চোর। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। এর আগেও ঝালকাঠির ছত্রকান্দা এলাকা থেকে বিকাশের ২৭ লাখ টাকা ছিনতাই হয়। জেলার রাজাপুর উপজেলার শুক্তাগড় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সাইফুল ইসলাম জানান, শুক্তাগড় ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামে রবিবার রাতে স্থানীয় কামরুল ইসলাম ও মনির হোসেনের দোকান ভেঙে টাকা ও মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে গেছে। একই রাতে ৮৮ নম্বর জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষের তালা ভেঙে বিদ্যালয়ের ল্যাপটপ, প্রজেক্টরসহ মূল্যবান মালপত্র চুরি হয়েছে। এদিকে রাজাপুর সদর ইউনিয়নের মনোহরপুর গ্রামে রবিবার রাতে রুহুল আমিনের বসতঘরে হানা দেয় চোর। গৃহকর্তা রুহুল আমিন জানান, সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে স্বর্ণালংকার, টাকা, মোবাইল ফোনসহ লক্ষাধিক টাকার মালপত্র নিয়ে গেছে। গত শুক্রবার রাতে রাজাপুর থানার ৩০০ গজ দূরত্বে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় ডাকাতদল ঘরের সবাইকে বেঁধে রেখে দুই ঘণ্টাব্যাপী লুট চালায়। ওই পরিবারের আড়াই লাখ টাকা ও ৭০ ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে গেছে বলে জানান গৃহকর্তা মোসলেম আলী মৃধা। এদিকে বরিশাল-পাথরঘাটা রুটের বিআরটিসির একটি যাত্রীবাহী বাস থেকে আমির হোসেন নামের মলম পার্টির এক সদস্যকে আটক করা হয়েছে। গাড়ির এক যাত্রীকে অচেতন করে ৪০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় গাড়ির কন্ডাক্টর আসাদুল ইসলামের সন্দেহ হয়। আসাদুল ওই ব্যক্তির পিছু নিয়ে তাকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আটক করে রাজাপুর থানায় সোপর্দ করে। আটক হওয়া আমির হোসেন পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার বাঁশবুনিয়া গ্রামের মৃত শুকুর আলীর ছেলে।



মন্তব্য