kalerkantho


ভারতের অর্ধেক সম্পদ ১ শতাংশ ধনীর হাতে

বাণিজ্য ডেস্ক   

১১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



অর্থনৈতিক উন্নয়নে কয়েক বছর ধরেই জোরালো প্রবৃদ্ধি অর্জন করছে ভারত। দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ বৃদ্ধি ও শিল্প উন্নয়নে দেশটি ক্রমেই উন্নত দেশের কাতারে উঠে আসছে। তবে গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো বলছে, দেশটির উন্নয়নের সুফল সবাই পাচ্ছে না। ফলে বৈষম্য বাড়ছে ব্যাপকভাবে। 

সম্প্রতি প্রকাশিত ‘গ্লোবাল ওয়েলথ রিপোর্ট’ শীর্ষক প্রতিবেদনে আর্থিক সেবা প্রতিষ্ঠান ক্রেডিট সুইস জানায়, ভারতের ধনী ১০ শতাংশ মানুষ দেশের ৭৭.৪ শতাংশ সম্পদের মালিক। আর সর্বনিম্ন ৬০ শতাংশ মানুষের হাতে রয়েছে মাত্র ৪.৭ শতাংশ সম্পদের মালিকানা। এমনকি সবচেয়ে ধনী ১ শতাংশের হাতে রয়েছে ৫১.৫ শতাংশ সম্পদ।

ক্রেডিট সুইসের মতে, এত বিপুল বৈষম্য বেশ কিছু প্রশ্ন তৈরি করে। বিশেষ করে সবাই যখন উন্নয়নের কথা বলছে; একটি যৌক্তিক প্রশ্ন হচ্ছে, কার উন্নয়নের কথা আমরা বলছি। এটা কি শীর্ষ ১ শতাংশের উন্নয়ন, না শীর্ষ ১০ শতাংশের, নাকি সর্বনিম্ন ৬০ শতাংশের উন্নয়ন? মূলত উন্নয়নের সুবিধা ধনী শ্রেণিটি ভোগ করায় তাতে পুরোদমে বৈষম্য বাড়ছে, যা সামাজিক অস্থিরতা ও সন্ত্রাসের জন্ম দিচ্ছে। এটি সাধারণ মানুষের মধ্যে অসন্তোষের জন্ম দিচ্ছে। যেখানে দেশের বেশির ভাগ মানুষের সম্পদ ৫ শতাংশের নিচে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতে সম্পদ বাড়লেও এ প্রবৃদ্ধিতে সবার অশংগ্রহণ নেই। এখনো বিপুল পরিমাণ দারিদ্র্য রয়েছে ভারতে। প্রাপ্তবয়স্ক ৯১ শতাংশ মানুষের গড় সম্পদ ১০ হাজার ডলারের নিচে। যেখানে মাত্র ০.৬ শতাংশ ধনী প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের নিট সম্পদ এক লাখ ডলারের ওপর।

এদিকে বিশ্বের ধনীদের সম্পদ নিয়ে ইউবিএস ও পিডাব্লিউসি প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমানে ভারতে বিলিয়নেয়ার রয়েছেন ১১৯ জন, যা আগের বছরের চেয়ে বেড়েছে ১৯ শতাংশ। এ ছাড়া ২০১৭ সালে বিশ্বের বিলিয়নেয়ারদের সম্পদ প্রায় ২০ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৮.৯ ট্রিলিয়ন ডলার। লাইভ মিন্ট।



মন্তব্য