kalerkantho


যুক্তরাষ্ট্র-চীন পাল্টাপাল্টি শুল্ক ১৬ বিলিয়ন ডলার পণ্যে

বাণিজ্য ডেস্ক   

১০ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



যুক্তরাষ্ট্র-চীন পাল্টাপাল্টি শুল্ক ১৬ বিলিয়ন ডলার পণ্যে

চীনের একটি ব্যাংকে লেনদেনে ব্যস্ত কর্মকর্তা

বাণিজ্য যুদ্ধের ধারাবাহিকতায় যুক্তরাষ্ট্র-চীন এবার একে অন্যের আরো ১৬ বিলিয়ন ডলার পণ্যে শুল্ক আরোপ করল। গত মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেড রিপ্রেজেন্টেটিভ (ইউএসটিআর) অফিস শুল্ক আরোপের একটি চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়েছে, আগামী ২৩ আগস্ট থেকে চীনের আরো ১৬ বিলিয়ন ডলার পণ্যে ২৫ শতাংশ শুল্ক সংগ্রহ করবে যুক্তরাষ্ট্র। যেখানে ২৭৯টি আমদানি পণ্যের নাম উঠে এসেছে।

এ প্রতিক্রিয়ায় গত বুধবার চীনের অর্থ মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, তারাও যুক্তরাষ্ট্রের আরো ১৬ বিলিয়ন ডলার পণ্যে শুল্ক আরোপ করবে, যা আগামী ২৩ আগস্ট একই দিনে কার্যকর হবে।

ক্ষমতায় আসার পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চীন থেকে বাণিজ্যিক ছাড় আদায়ের জন্য চাপ দিয়ে আসছেন। অভিযোগ করেছেন মেধাস্বত্ব চুরি ও মুদ্রা কারসাজির। এরই অংশ হিসেবে গত মাসে দেশটির ৩৪ বিলিয়ন ডলার পণ্যে শুল্ক আরোপ করা হয়। নতুন করে এবার আরো ১৬ বিলিয়ন ডলার পণ্যে শুল্ক বসানো হচ্ছে।

নতুন শুল্ক আরোপে চীনের সেমি কনডাক্টররা ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে জানা যায়। এ খাতসংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা এরই মধ্যে এ নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করেছেন। এক বিবৃতিতে সেমিকনডাক্টর ইন্ডাস্ট্রি অ্যাসোসিয়েশনের (এসআইএ) প্রেসিডেন্ট জন নেফার বলেন, ‘আমরা কড়া ভাষায় এর প্রতিবাদ জানিয়েছি। আমরা বলেছি, এর দ্বারা শুধু চীনা কম্পানিগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হবে না, আমেরিকার চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোও ক্ষতিগ্রস্ত হবে।’

ইউএসটিআর সূত্রে আরো জানা যায়, ২৫ শতাংশ শুল্ক চীনের যেসব পণ্যে আরোপ করা হবে এর মধ্যে রয়েছে ইলেকট্রনিকস, প্লাস্টিক, কেমিক্যাল এবং রেলপথ সরঞ্জাম।

যুক্তরাষ্ট্রের সর্বশেষ এ শুল্ক আরোপ চূড়ান্ত করার ফলে চীনের মোট ৫০ বিলিয়ন ডলার পণ্যে ২৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ হচ্ছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, দুই দেশের তীব্র বাণিজ্যিক উত্তেজনায় হয়তো সব পণ্যেই এভাবে বাড়তি শুল্ক আরোপ হবে।

ডোনাল্ড ট্রাম্প এরই মধ্যে হুমকি দিয়েছেন তিনি চীনের আরো ২০০ বিলিয়ন ডলার পণ্যে ২৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করবেন। এর পরই আরো ৩০০ বিলিয়ন ডলার পণ্য এ তালিকায় থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘বাণিজ্য যুদ্ধ জেতা সহজ’। তিনি আরো হুমকি দিয়ে বলেছেন, বেইজিং যদি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ৩৩৫ বিলিয়ন ডলার বাণিজ্যিক উদ্বৃত্ত কমানোর উদ্যোগ না নেয় তবে চীনের সব আমদানি পণ্যেই তিনি বাড়তি শুল্ক আরোপ করবেন। রয়টার্স।



মন্তব্য