kalerkantho


খোলা সিগারেট বিক্রি বন্ধের দাবি

বাণিজ্য ডেস্ক   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



খোলা সিগারেট বিক্রি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল করিম। গতকাল জাতীয় তামাকবিরোধী প্ল্যাটফর্মের দ্বিতীয় সভায় তিনি ১৮ বছরের কম বয়সীদের তামাকজাত দ্রব্য ক্রয় ও বিক্রয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ এবং তামাকজাত দ্রব্য উত্পাদনকারী প্রতিষ্ঠানসমূহ থেকে প্রাপ্ত করের তুলনায় সরকারের স্বাস্থ্য খাতে তামাকজনিত রোগের কারণে অধিক ভর্তুকি প্রদানের বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে জাতীয় তামাকবিরোধী প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে অবগত করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় তামাকবিরোধী প্ল্যাটফর্মের আহ্বায়ক এবং পিকেএসএফের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশে মোট তামাক চাষের এক-তৃতীয়াংশ হয়েছে কুষ্টিয়া জেলায়। এ ছাড়া মোট তামাক উত্পাদনের ৪৫ শতাংশ হয়েছে কুষ্টিয়ায়। এ জন্য পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) কুষ্টিয়া জেলায় তামাক চাষ করছে এমন ১০০ কৃষকের ১০০ বিঘা জমিতে তামাকের পরিবর্তে বিকল্প লাভজনক শস্য, গবাদি পশু পালন ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে অনুদান ও ঋণ প্রদানের মাধ্যমে উল্লিখিত প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

সভায় ‘স্বাস্থ্য উন্নয়ন সারচার্জ ব্যবস্থাপনা নীতি ২০১৭’ বিষয়ক গেজেট; তামাকবিরোধী কার্যক্রমে বিশেষ অবদান রাখার জন্য প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি পর্যায়ে পুরস্কার প্রদান; তৃণমূল পর্যায়ে তামাকবিরোধী কার্যক্রমে সম্পৃক্ত বিভিন্ন সংগঠনকে প্ল্যাটফর্মে অন্তর্ভুক্তিকরণ ও দক্ষতা বৃদ্ধিমূলক ওরিয়েন্টেশন এবং তামাক উত্পাদন বন্ধে পিকেএসএফ গৃহীত ‘তামাক চাষ নিয়ন্ত্রণে বিকল্প ফসল উত্পাদন ও বহুমুখী আয়ের উৎস সৃষ্টি’ শীর্ষক প্রকল্পের অগ্রগতি সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।

সভায় জানানো হয়, প্রকল্পে অর্থায়ন ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কৃষকদের দক্ষতা বৃদ্ধি করায় সহায়তা করা হচ্ছে।


মন্তব্য