kalerkantho


পুঁজিবাজারে ২৭ শতাংশ লেনদেন কমেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



দুই কার্যদিবসের ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন অর্ধেকে নেমেছে। যদিও এই সপ্তাহে পাঁচ কার্যদিবসের চার দিনেই এক হাজার কোটি টাকার বেশি লেনদেন হয়েছে।

তবে এ চার দিনের দুই দিনেই লেনদেন দেড় হাজার কোটি টাকার উপরে। তবে সর্বশেষ দুই কার্যদিবসে লেনদেন অর্ধেকে নেমেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার লেনদেন ৭৮০ কোটি টাকায় নেমেছে।

বাজারসংশ্লিষ্টরা বলছেন, কয়েকদিন একটানা বাজার ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় অনেক কম্পানির শেয়ারের দাম অস্বাভাবিক হারেই বেড়েছে। আর এই দাম বাড়ায় মুনাফা তুলতে শেয়ার বিক্রি করছেন বিনিয়োগকারী। আর শেয়ার বিক্রির চাপে কমেছে সূচক।

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস গতকাল বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৭৮০ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ২.৪৪ পয়েন্ট। আগের দিনও সূচকের সঙ্গে কমেছিল লেনদেন।

বুধবার লেনদেন হয় এক হাজার ৮২ কোটি টাকা। আর সূচক কমে ৬৩.৬৭ পয়েন্ট।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, সোমবার ডিএসইতে সাড়ে ৮ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়। এদিন লেনদেন হয় এক হাজার ৫২৫ কোটি ৮৯ লাখ টাকা। মঙ্গলবার কিছুটা কমলেও লেনদেন হয় এক হাজার ৫০৮ কোটি টাকা। বুধবার লেনদেন আরো কমে হাজার কোটি টাকায় নেমে আসে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, দিনভর সূচকের হ্রাস-বৃদ্ধির মধ্য দিয়ে দিনের লেনদেন শেষ হয়। দিনশেষে সূচক দাঁড়ায় ছয় হাজার ১৭০ পয়েন্ট। ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১ পয়েন্ট কমে দুই হাজার ১৯৭ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৩৬১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হওয়া ৩২৮ কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৮৯টির, কমেছে ২০৬টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩ কম্পানির শেয়ারের দাম।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৯ কোটি ১৪ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ১.৫০ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫১ কোটি ১৭ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছিল ১৩৩ পয়েন্ট।


মন্তব্য