kalerkantho


এসএমই মেলার উদ্বোধনীতে শিল্পমন্ত্রী

এসএমই খাতের বিকাশে নীতি সহায়তা অব্যাহত থাকবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



এসএমই খাতের ওপর নির্ভর করে এ দেশের শিল্পায়ন টিকে আছে। তাই টেকসই এসএমই খাতের বিকাশে সরকারের নীতি সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

গতকাল বুধবার জাতীয় এসএমই মেলা-২০১৭ এর উদ্বোধনীতে এমন আশ্বাস দিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। তিনি বলেন, এসএমই খাতের প্রসারে সরকারের পক্ষ থেকে উদ্যোক্তাদের উন্নত প্রশিক্ষণ, তথ্য ও গবেষণা সেবা, সহজ শর্তে ও সিঙ্গেল ডিজিটে ঋণসুবিধা, পণ্যের গুণগত মানোন্নয়ন ও বিপণনে সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে পাঁচ দিনের এ মেলা শুরু হয়েছে। মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন কে এম হাবিব উল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বেগম মেহের আফরোজ চুমকি। এতে অন্যদের মধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এনডিসি এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের এমডি মো. সফিকুল ইসলাম বক্তব্য দেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, এ পর্যন্ত এসএমই ফাউন্ডেশন প্রায় ছয় হাজার নারী উদ্যোক্তাকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে। পাশাপাশি নারী ও পুরুষ মিলে এক হাজার ১২০ জন উদ্যোক্তাকে স্বল্প সুদে ৫৫ কোটি টাকা এসএমই ঋণ দিয়েছে। টেকসই ও পরিবেশবান্ধব শিল্পায়ন বর্তমান সরকারের রাজনৈতিক অঙ্গীকার—এমন তথ্য জানিয়ে আমির হোসেন আমু বলেন, বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় এলাকাভিত্তিক কাঁচামালের সহজলভ্যতা বিবেচনা করে দেশব্যাপী ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প গড়ে তোলা হচ্ছে।

এসএমই খাতে দক্ষ নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিসিক শিল্পনগরীগুলোয় ১০ শতাংশ প্লট মহিলাদের মধ্যে বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে। ভবিষ্যতে নতুন শিল্পনগরীর ক্ষেত্রেও নারীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্লট বরাদ্দ দেওয়া হবে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, শিল্পায়নের লক্ষ্য অর্জনে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসতে হবে। সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় ইতিমধ্যে দেশের তৈরি পোশাক শিল্প রপ্তানির ক্ষেত্রে বিশ্বে দ্বিতীয় এবং চামড়াশিল্প অষ্টম অবস্থানে রয়েছে। সাভারে চামড়া শিল্পনগরীর কার্যক্রম পুরোদমে চালু হলে, চামড়া শিল্প খাত তৈরি পোশাকের মতো দেশের অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে। তিনি বিদেশের বাজারে বাংলাদেশি এসএমই পণ্যের ব্যাপক চাহিদার কথা উল্লেখ করে অধিক পরিমাণে পণ্য রপ্তানির মাধ্যমে জাতীয় অর্থনীতিকে স্বনির্ভর করতে এসএমই উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।

মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বেগম মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, এ দেশের নারীদের উন্নয়নে সরকার কাজ করে চলেছে। নারীর সমস্যায় পাশে থাকছে। নারীকে এগিয়ে নিতে নারী নীতিমালা করেছে।

মেলায় সারা দেশ থেকে আগত ২০০ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠানের ২১৬টি স্টল স্থান পেয়েছে। এসব স্টলে পাট, চামড়াজাত পণ্য, পোশাক, ডিজাইন ও ফ্যাশনওয়্যার, হস্তশিল্প, কৃষি প্রক্রিয়াকরণ পণ্য ইত্যাদি রয়েছে।


মন্তব্য