kalerkantho


ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষতি মাসে ১৮ কোটি ডলার

বাণিজ্য ডেস্ক   

১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষতি মাসে ১৮ কোটি ডলার

ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞার প্রভাব শুধু মধ্যপ্রাচ্যে পড়েনি। চীনসহ অনেক দেশ থেকেই আমেরিকায় পর্যটক গমন কমেছে

মুসলিম দেশগুলোর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ফলে যুক্তরাষ্ট্রের মাসে লোকসান হচ্ছে ১৮ কোটি ৫০ লাখ ডলার। যদি নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত থাকে এ ক্ষতির পরিমাণ বাড়তে থাকবে। গত বুধবার বার্লিনে শুরু হওয়া ট্রাভেল ট্রেড শো আইটিবিতে এসব কথা বলেন জাতিসংঘের পর্যটন সংস্থা ইউএনডাব্লিউটিওর প্রধান ড. তালেব রিফাই।

ড. তালেব রিফাই বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দ্বিতীয়বারের নির্বাহী আদেশে ছয়টি মুসলিম দেশের নাগরিকদের ওপর যে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন তাতে পর্যটন খাতে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে থাকবে। তিনি আরো বলেন, মানুষ সেখানে যাবে না, যেখানে সে স্বাগত হবে না।

সাত মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে ট্রাম্পের প্রথম নিষেধাজ্ঞা আদালতে স্থগিত হয়ে যায়। এরপর গত সোমবার ইরাককে বাদ দিয়ে বাকি ছয়টি মুসলিম দেশের নাগরিকদের ওপর নতুন করে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন তিনি। গত সপ্তাহে তালেব রিফাই বলেন, প্রথম নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর যুক্তরাষ্ট্র এক মাসে ১৮ কোটি ৫০ লাখ ডলার হারিয়েছে। একই নীতি যদি অব্যাহত থাকে তবে প্রতি মাসে দেশটির লোকাসানের পরিমাণ বাড়তে থাকবে।

রিফাই জানান, এ বছর আন্তর্জাতিক পর্যটনে প্রবৃদ্ধি আসবে ৩ থেকে ৪ শতাংশ। গত বছর ১.২৪ বিলিয়ন মানুষ বিশ্বব্যাপী ভ্রমণ করে।

ভ্রমণ বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান ফরওয়ার্ডকিস জানায়, মুসলিম দেশের নাগরিকদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে আন্তর্জাতিক ভ্রমণ বুকিং কমেছে ৬.৫ শতাংশ। এরপর আদালতের রায়ে পর্যটক গমন আবার কিছুটা বাড়লেও তাতে আবার ভাটা পড়ে ট্রাম্পের নতুন নির্বাহী আদেশ আসায়।

সংস্থার সর্বশেষ তথ্যে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে আগামী তিন মাসের বুকিং ০.৪ শতাংশ কমেছে। অন্যদিকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার পর মধ্যপ্রাচ্য থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ বুকিং কমেছে ২৭ শতাংশ। এ ব্যাপারে মতামত চাইলে কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হয়নি মধ্যপ্রাচ্যের দুই বৃহৎ বিমান সংস্থা এমিরেটস এবং কাতার এয়ারওয়েজ। রয়টার্স, ট্রাভেল উইকলি।


মন্তব্য