kalerkantho


আর্থিক খাতে সুবাতাস

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



আর্থিক খাতে সুবাতাস

ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ দিকে পুঁজিবাজারের লেনদেন ও সূচক কমার সঙ্গে ক্রমাগতভাবে কমছিল আর্থিক খাতের লেনদেন। এ খাতের কয়েকটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দামে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেশি থাকলেও মন্দাবস্থায় ছিল ব্যাংক খাতের শেয়ার।

এতে মৌল ভিত্তির প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিত ব্যাংকের শেয়ারের দাম ও লেনদেন কমছিল। চাহিদার চেয়ে জোগান বেশি হওয়ায় কমছিল শেয়ারের দাম। কয়েক দিনের ব্যবধানে আবারও বাজারের নেত্বত্বে ফিরেছে মৌল ভিত্তির ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান। পুঁজিবাজারে মৌল ভিত্তিসম্পন্ন এই খাতের সুবাতাসে বিনিয়োগকারীরাও আশাবাদী হয়ে উঠেছে। গতকাল বুধবার মোট লেনদেনের ৩০ শতাংশই এই আর্থিক খাতের।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিগত বছর তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলো ভালো লভ্যাংশ দিলেও কমছিল শেয়ারের দাম। যদিও লভ্যাংশ ঘোষণার সময় ঊর্ধ্বমুখী হয়েছিল আর্থিক খাতের কম্পানি। নন-ব্যাংকিং কয়েকটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম ক্রমাগতভাবেই বাড়ছে। তবে ব্যাংকের শেয়ারে বিমুখ হয়েছিল বিনিয়োগকারীরা।

আবারও ব্যাংক খাতের লেনদেন বেড়েছে। আইডিএলসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘ব্যাংক খাতের লেনদেন ভিত্তি করেই বাজার ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। তালিকাভুক্ত ৩০ ব্যাংকের মধ্যে ২৫টিরই দাম বেড়েছে। সব মিলিয়ে ব্যাংক খাতের শেয়ারের দামে ১.৫ শতাংশ বৃদ্ধি ঘটেছে। ’

তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, আর্থিক খাতের ব্যাংকে সর্বোচ্চ লেনদেন বেড়েছে। আর ওষুধ ও রসায়ন এবং বস্ত্র খাত সংশোধন হয়েছে। কয়েক দিন থেকে একটানা বাড়ছিল এ খাতের শেয়ারের দাম। ব্যাংক খাতের লেনদেন বেড়েছে ৪.৪১ শতাংশ আর বস্ত্র খাতে কমছে ৪.৯১ শতাংশ।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে লেনদেন হয়েছে মোট লেনদেনের ৩০ শতাংশ। ব্যাংকের লেনদেন হয়েছে ১৩.৮৩ শতাংশ আর আর্থিক প্রতিষ্ঠানের লেনদেন ১৬.২৬ শতাংশ। আগের দিন মোট ৯.৪১ শতাংশ বা ৮৯ কোটি ৭২ লাখ টাকা ছিল ব্যাংক খাতের। আর বুধবার এই লেনদেন ৪.৪১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৩ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতে লেনদেন হয়েছে ১৮১ কোটি ১৯ লাখ টাকা বা ১৬.২৬ শতাংশ আর আগের দিন এ লেনদেন ছিল ১৪৯ কোটি ৪৬ লাখ টাকা বা ১৫.৬৮ শতাংশ।

গতকালের বাজার : সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) টানা তৃতীয় দিনের মতো সূচক ও লেনদেন ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। এর আগে কয়েক দিন একটানা সূচক ও লেনদেন কমছিল। সেই পতনবৃত্ত থেকে ঊর্ধ্বমুখিতায় ফিরেছে বাজার। সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস গতকাল বুধবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে এক হাজার ৩০২ কোটি ১১ লাখ টাকা। আর মূল্যসূচক বেড়েছে ২৭ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ১২৭ কোটি ৫৬ লাখ টাকা আর মূল্যসূচক বেড়েছিল ৩৩.৬৬ পয়েন্ট। সেই হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১৭৫ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। দিন শেষে সূচক দাঁড়িয়ছে পাঁচ হাজার ৬৪৯ পয়েন্ট। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮৪ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছে ৫০ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬২ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছিল ২ পয়েন্ট। লেনদেন হওয়া ২৫৭ কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১০৪টির, কমেছে ১২১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪২ কম্পানির শেয়ারের দাম।


মন্তব্য