kalerkantho


দুধের দাম কমে গেলে খামারিরাও উৎসাহ হারিয়ে ফেলে

দুগ্ধ খামারিদের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করার আহ্বান

বাণিজ্য ডেস্ক   

৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



দুগ্ধ খামারিদের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করার আহ্বান

প্রাণ এবং জাতিসংঘ শিল্প উন্নয়ন সংস্থার (ইউনিডো) উদ্যোগে গতকাল দেশের দুগ্ধ খাতের উন্নয়নে আয়োজিত কর্মশালায় বক্তারা

দেশে দুধের উৎপাদন বাড়ানো এবং এই খাতকে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে বিরাজমান সমস্যা সমাধানের ওপর তাগিদ দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা। এ সময় তাঁরা দুধের মাথাপিছু ব্যবহার অন্যান্য দেশের তুলনায় কম উল্লেখ করে দুগ্ধ খামারিদের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানান।

গতকাল রবিবার রাজধানীর একটি হোটেলে প্রাণ এবং জাতিসংঘ শিল্প উন্নয়ন সংস্থার (ইউনিডো) যৌথ উদ্যোগে দেশের দুগ্ধ খাতের উন্নয়নে ডেইরি হাব ও ডেইরি অ্যাকাডেমির ভূমিকা বিষয়ক এক কর্মশালায় বক্তরা এ আহ্বান জানান।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউনিডোর প্রতিনিধি ড. জাকি-উজ-জামান বলেন, ‘এ দেশে দুধের উৎপাদন নির্ভর করে মৌসুমের ওপর। সে কারণে দামের তারতম্য লক্ষ করা যায়। দুধের দাম কমে গেলে খামারিরাও উৎসাহ হারিয়ে ফেলে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে সময়োপযোগী পদক্ষেপ প্রয়োজন। ’ তিনি দেশে প্রথম ডেইরি হাব স্থাপনের জন্য প্রাণকে ধন্যবাদ জানান।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক নুরুল ইসলাম বলেন, ‘একদিকে দুধের উৎপাদন বাড়াতে হবে, অন্যদিকে দুধের ব্যবহার বাড়াতে উৎসাহমূলক কর্মসূচি হাতে নিতে হবে। কেননা দেশে মাথাপিছু দুধের ব্যবহার খুব কম। ’

অনুষ্ঠানে প্রাণ ডেইরির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, প্রাণ ডেইরি সব সময় খামারিদের দুগ্ধ উৎপাদনে উৎসাহ দিয়ে আসছে।

শুধু ব্যবসায়িক চিন্তা করে নয়; খামারিদের জীবনমান উন্নয়নে প্রাণ ডেইরি কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

কর্মশালায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেইরি সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক এম এ সামাদ খান, প্রাণ ডেইরির জেনারেল ম্যানেজার (অপারেশন) রাজীব ইবনে ইসলাম ও চিফ ডেইরি এক্সটেনশন ডা. রাকিবুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট খাতের বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিরা।

সুইডিশ ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট কো-অপারেশন এজেন্সি (সিডা), টেট্রা লাভাল ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সহযোগিতায় প্রাণ ডেইরি হাব ও অ্যাকাডেমি পরিচালিত হচ্ছে।


মন্তব্য