kalerkantho


চীনের হেনানে গ্রামীণ ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচির ছয় শাখা চালু

বাণিজ্য ডেস্ক   

৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



গ্রামীণ ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচির ছয়টি শাখা চালু করা হয়েছে চীনের হেনান প্রদেশে। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি শাখাগুলোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নোবেল বিজয়ী প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস।

হেনান প্রদেশের দরিদ্র মানুষদের জন্য এই গুরুত্বপূর্ণ আর্থিক সেবাটি চালু হলো সরকার প্রতিষ্ঠিত জংইউয়ান ব্যাংক ও গ্রামীণ চায়নার যৌথ উদ্যোগে।

হেনানে অবস্থিত জংইউয়ান ব্যাংক মাত্র ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হলেও গত বছর ব্যাংকটি তিন বিলিয়ন ডলার মুনাফা অর্জন করেছে। গ্রামীণ চায়না পরিচালিত এই নতুন কর্মসূচির জন্য ঋণ মূলধন ও পরিচালনা ব্যয় অর্থায়ন করবে জংইউয়ান ব্যাংক। হেনান প্রদেশের জেংজুতে অবস্থিত ব্যাংকটির প্রধান কার্যালয়ে ব্যাংকটির চেয়ারম্যান, প্রেসিডেন্ট ও স্টাফদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে ও সহযোগিতা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে ব্যাংকটি প্রফেসর ইউনূসকে আমন্ত্রণ জানায়। চীনের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত তিন হাজার বছরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী হেনান প্রদেশকে চৈনিক সভ্যতার সূতিকাগার বিবেচনা করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রাদেশিক সরকারের সিনিয়র সদস্যরা, ব্যাংকটির চেয়ারম্যান ও প্রেসিডেন্ট। জেংজু শহরের প্রায় ২৫০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ওই দিনই এর আগে জেংজুতে অবস্থিত চীনা কমিউনিস্ট পার্টি অফিসে প্রফেসর ইউনূস ও তাঁর সফরসঙ্গীদের স্বাগত জানান ১০ কোটি জনসংখ্যা অধ্যুষিত হেনান প্রদেশের প্রাদেশিক সরকারের চীনা কমিউনিস্ট পার্টির সর্বোচ্চ রাজনৈতিক নেতা সেক্রেটারি জি ফু জান। সেক্রেটারি বিশ্বব্যাপী দরিদ্র মানুষদের জন্য বিশেষত চীনের দারিদ্র্য বিমোচন কর্মসূচিতে তাঁর অসাধারণ অবদানের জন্য প্রফেসর ইউনূসকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, ‘প্রফেসর ইউনূস তাঁর কর্ম ও দর্শনের জন্য সমগ্র চীনে বহুল পরিচিত এবং জংইউয়ান ব্যাংক ও গ্রামীণ চায়নার এই যৌথ উদ্যোগটিতে তিনি অত্যন্ত আনন্দিত।

প্রফেসর ইউনূস দারিদ্র্য বিমোচনে চীনের প্রতিশ্রুতি ও গত তিন দশকে ৩০ কোটি মানুষকে দারিদ্র্যসীমার ওপরে নিয়ে আসার জন্য সেক্রেটারিকে অভিনন্দন জানান এবং বলেন ২০২০ সালের মধ্যে দারিদ্র্য দূরীকরণের যে লক্ষ্যমাত্রা চীন ধার্য করেছে, তা অর্জনে তিনি আনন্দের সঙ্গে সব ধরনের সহযোগিতা করবেন। ’ এর আগের দিন গ্রামীণ চায়না চীনে গ্রামীণ ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচির অগ্রগতির ওপর পেইচিংয়ে একটি অর্ধ-দিনব্যাপী সম্মেলনের আয়োজন করে। চীনে ক্ষুদ্রঋণ নিয়ে নেতৃত্ব দিচ্ছে, এমন সব প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি এই সম্মেলনে ছিল।


মন্তব্য