kalerkantho


ওইসিডির প্রতিবেদন

ভারতে এক দশকে ১৪ কোটি মানুষ দারিদ্র্যমুক্ত

বাণিজ্য ডেস্ক   

৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও জোরালো প্রবৃদ্ধির মধ্য দিয়ে গত এক দশকে ভারতে ১৪ কোটি মানুষ দারিদ্র্যমুক্ত হয়েছে। কিন্তু এ দেশটির বিপুলসংখ্যক মানুষ এখনো বিদ্যুৎ পায়নি, নেই স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেট। সম্প্রতি উন্নত দেশগুলোর সংগঠন অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (ওইসিডি) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ দাবি করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নব্বইয়ের মধ্যভাগ থেকে প্রতিবছর ভারতে মাথাপিছু জিডিপি ৫ শতাংশের বেশি করে বেড়েছে। ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অর্থনৈতিক সংস্কারে প্রবৃদ্ধিতে নতুন গতি এসেছে, সেই অর্থনৈতিক সম্ভাবনাও জোরালো হয়েছে। কিন্তু এ প্রবৃদ্ধি পর্যাপ্তভাবে সমুদয়িক নয়, ফলে দরিদ্রের হার এখনো ব্যাপকভাবে রয়ে গেছে। এমনকি স্বাস্থ্যসেবা খাতে যে ব্যয় হয়, তা এখনো জিডিপির মাত্র ১ শতাংশ।

মোদি ক্ষমতায় আসার পরই জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনে ভারত উচ্চকাঙ্ক্ষী হয়ে ওঠে। যদিও গত বছরের শেষ দিকে বড় নোট বাতিলের ফলে অর্থনীতিতে এর কিছু বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। এর পরও ২০১৬-১৭ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ৭.১ শতাংশ আসবে বলে আশা করা যায়।

ওইসিডির মতে, ভারতে যেসব সংস্কার হয়েছে তার মধ্যে মূল্যস্ফীতি লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়ন এবং বিদেশি বিনিয়োগনীতি শিথিলকরণ প্রবৃদ্ধি অর্জনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে।

এসব কারণেই মূলত মাত্র ১০ বছরেরও কম সময়ের মধ্যে ভারতে ১৪ কোটি মানুষ দারিদ্র্যসীমা থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছে।

দিল্লিতে এ প্রতিবেদন প্রকাশকালে ওইসিডি সেক্রেটারি জেনারেল জোশে এঞ্জেল গারিয়া বলেন, এ সাফল্যে আত্মতুষ্টির কিছু নেই, বরং সংস্কার কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে, যাতে সমুদয়িক প্রবৃদ্ধি অর্জন করা যায়। তিনি বলেন, অনেক ভারতীয় এখনো বিদ্যুৎ ও স্যানিটেশনের মতো সরকারি মৌলিক সেবা থেকে বঞ্চিত।

এএফপি।


মন্তব্য