kalerkantho


পরিবহন ধর্মঘটে অচল স্থলবন্দর

বাণিজ্য ডেস্ক   

১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



পরিবহন ধর্মঘটে অচল স্থলবন্দর

তিন দিন ধরে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে এবং গতকাল থেকে দেশব্যাপী শুরু হয় পরিবহন ধর্মঘট। এ কারণে অচল হয়ে পড়েছে দেশের বিভিন্ন সীমান্তে অবস্থিত স্থলবন্দরগুলো।

হাজার হাজার ট্রাক বন্দরের বাইরে যত্রতত্র অপেক্ষা করছে। পচনশীল পণ্য নিয়ে বিপাকে পড়েছে ব্যবসায়ীরা। ভারত থেকে আসা শত শত পাসপোর্ট যাত্রী আটকা পড়েছে।

খুলনা : প্রত্যাহার ঘোষণার পর ফের পরিবহন ধর্মঘটে খুলনার জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। গতকাল মঙ্গলবার ধর্মঘটের তৃতীয় দিনে খুলনার অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার রুটে কোনো পরিবহন চলাচল করেনি। বরং শ্রমিকরা বিকল্প যান হিসেবে চলাচলকারী ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক, মাহিন্দ্রসহ অন্য যানচলাচলে মোড়ে মোড়ে বাধা সৃষ্টি করে। সকালে সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল-সংলগ্ন সড়কে শ্রমিকরা টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।

জনদুর্ভোগ ও ভোগান্তির বিষয়টি বিবেচনা করে সোমবার দুপুরে খুলনা সার্কিট হাউস মিলনায়তনে খুলনা বিভাগ ও জেলা প্রশাসনের সঙ্গে এক বৈঠকে মালিক-শ্রমিক নেতারা ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। পরবর্তী সময়ে যানচলাচল শুরু হলেও সন্ধ্যার দিকে অবস্থা পাল্টে যায়।

শ্রমিকদের একটি অংশ গাড়ি চলাচলে বাধার সৃষ্টি করে।

গতকাল দুপুরে বাগেরহাট থেকে আসা শিরানা বেগম বলেন, ‘তিন দিন আগে গাড়িতে বাগেরহাট গিয়েছিলাম। বাধ্য হয়ে আজ ইজিবাইকে ঘুরে ঘুরে খুলনায় ফিরছি। একদিকে শ্রমিকদের তাড়া, অন্যদিকে দুই-তিন গুণ বেশি ভাড়া গুনতে হয়েছে। ’

পরিবহন ধর্মঘটে খুলনার বড় মোকাম বড় বাজারে ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছে। দূর-দূরান্তের ব্যবসায়ীরা বাজারে আসতে পারছে না। বাজারের ব্যবসায়ী জাকির হোসেন ঝন্টু বলেন, ‘অযৌক্তিক ধর্মঘটে আমরা হাত-পা গুটিয়ে বসে আছি। বাজারে কোনো আমদানি-রপ্তানি নেই। এ অবস্থা চলতে থাকলে ব্যবসায়ীরা পথে বসবে। ’

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের খুলনা বিভাগীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক শেখ শফিকুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, মঙ্গলবার বিকেল ৬টা পর্যন্ত ধর্মঘট প্রত্যাহারের ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

বেনাপোল : পরিবহন ধর্মঘটে বেনাপোল বন্দর সম্পূর্ণ অচল হয়ে পড়েছে। বন্দরে আটকা পড়েছে কোটি টাকার ওষুধ, মাছ, পেঁয়াজসহ পচনশীল পণ্য। হাজারখানেক ট্রাক ও ট্রাক চেসিস খালাসের অপেক্ষায় যত্রতত্র পড়ে আছে বন্দরের বাইরে।

ভারত থেকে আসা শত শত পাসপোর্ট যাত্রী গতকালও বেনাপোল চেকপোস্টে আটকা পড়ে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। অনেকেই পরিবহন কাউন্টার, টার্মিনালসহ খোলা আকাশের নিচে অবস্থান নিয়েছে। অনেকে অবস্থান নিয়েছে বিভিন্ন হোটেলে। পরিবহন শ্রমিকরা রাস্তায় রাস্তায় লাঠিসোঁটা নিয়ে ব্যারিকেড দেওয়ায় অনেকেই বেনাপোল ছেড়ে যেতে চাইছে না।

ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ থেকে আসা ট্রাকচালক কে বাসাই জানান, ধর্মঘটের কারণে তিন দিন ধরে তাঁর মাছের ট্রাক খালি হচ্ছে না। এখন মাছ নষ্ট হয়ে দুর্গন্ধ ছাড়াচ্ছে।

পারমোজিত সিংহ নামে আরেক ভারতীয় ট্রাকচালক জানান, তিনি পেঁয়াজের ট্রাক নিয়ে চার দিন ধরে বন্দরে অবস্থান করছেন। তাঁরও পেঁয়াজ নষ্ট হওয়ার পথে। নষ্টের ভয়ে তিনি ট্রাকের ত্রিপল খুলে দিয়ে আরো বাতাস লাগাচ্ছেন।

ভারত থেকে আসা হার্টের রোগী উজ্জল কুমার ঘোষ জানান, তিনি ২৫ দিন পর ভারতে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন। ধর্মঘটের কারণে তিনি তাঁর বাড়ি নাটোরে ফিরতে পারছেন না। তিনি তাঁর এক আত্মীয়কে খুলনা থেকে অ্যাম্বুল্যান্স পাঠাতে বলেছেন। যদি অ্যাম্বুল্যান্স আসে তাহলে বাড়ি ফিরবেন, তা না হলে পরিবহন কাউন্টারে আশ্রয় নেবেন।

কাস্টমস কমিশনার শওকাত হোসেন জানান, পরিবহন ধর্মঘটে রাজস্ব আদায়ে বড় ধরনের প্রভাব পড়েছে। যেখানে প্রতিদিন ১৪-১৫ কোটি টাকা রাজস্ব আয় হওয়ার কথা, সেখানে প্রতিদিন এক-দুই কোটি টাকা রাজস্ব আয় হচ্ছে।  

সাতক্ষীরা : অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটের কবলে পড়ে সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দরে আমদানীকৃত কোটি কোটি টাকার পণ্য নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে। বিশেষ করে পেঁয়াজ ও বিভিন্ন ধরনের ফল আমদানিকারকরা চরম বিপাকে পড়েছে। ভোমরা বন্দরে আমদানীকৃত শতাধিক কাঁচামালসহ পাঁচ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক ধর্মঘটের প্রথম দিন থেকেই আটকা পড়েছে। একই সঙ্গে বন্দরের তিন হাজারের মতো শ্রমিক বেকার বসে আছে।

ভোমরা সিঅ্যান্ডএফ অ্যসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাছিম জানান, কাঁচামাল আমদানিকারকরা প্রতিদিন শত কোটি টাকার লোকসানে পড়ছে।

দিনাজপুর : অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটে গতকাল হিলি স্থলবন্দর থেকে পণ্যবাহী ট্রাক দেশের বাজারে মালামাল সরবরাহ করতে পারেনি। অন্যদিকে পণ্যবাহী ১৫০টি ভারতীয় ট্রাক বন্দরে মাল খালাস করে গেছে।

হিলি স্থলবন্দর আমদানিকারক গ্রুপের নেতা হারুন উর রশিদ হারুন জানান, অন্য দিনের মতোই গতকাল ভারতীয় পণ্যবাহী ট্রাক বন্দরের বেসরকারি অপারেটর পানামা পোর্টে পণ্য খালাস করেছে। গতকাল ১৫০টি ট্রাক পণ্য খালাস করেছে। এর মধ্যে পেঁয়াজ রয়েছে ৫০ ট্রাকের মতো। আজ বুধবার ওই পরিমাণ পণ্যবাহী ট্রাক বেসরকারি অপারেটর পানামা পোর্টে মালামাল খালাস করলে স্থান সংকুলান হবে না পোর্টে। অন্যদিকে ভারতে একমাত্র রপ্তানি পণ্য চিটাগুড় রপ্তানি হয়নি।


মন্তব্য