kalerkantho


সিলেট চেম্বারের ৫০ বছর পূর্তি উদ্যাপন

‘২০১৮ সালের পর শিল্পে গ্যাস সমস্যা থাকবে না’

সিলেট অফিস   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



‘২০১৮ সালের পর শিল্পে গ্যাস সমস্যা থাকবে না’

সিলেট চেম্বারের ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত

২০১৮ সালের পর গ্যাস নিয়ে আর কোনো সমস্যা থাকবে না। তখন গ্যাসভিত্তিক শিল্প-কারখানার বিষয়ে চিন্তা করা যেতে পারে। সিলেট থেকে কুমিল্লা হয়ে চট্টগ্রাম পর্যন্ত একটি শিল্প যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এখন এই অঞ্চলকে একটি শিল্প করিডর হিসেবে বিবেচনা করে শিল্প কাঠামো গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া দরকার। ’

গতকাল বুধবার দুপুরে সিলেটের ব্যবসায়ীদের সংগঠন সিলেট চেম্বার অব কমার্সের ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এসব কথা বলেন।

সিলেটের উন্নয়ন ও বিনিয়োগ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ‘সিলেটে চামড়াশিল্প, কাগজশিল্প এবং পর্যটন ও তথ্য-প্রযুক্তি খাতসহ অনেক খাতে বিনিয়োগের সম্ভাবনা আছে। যদি সেই সম্ভাবনাকে কাজে লাগানো যায়, তাহলে উন্নয়নের ক্ষেত্রে সিলেট আরো এগিয়ে যাবে। ’

নগরের আমানউল্লাহ কনভেশন সেন্টারে সিলেট চেম্বার সভাপতি সালাহউদ্দিন আলী আহমদের সভাপতিত্বে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘পর্যটনশিল্প সিলেটকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে। প্রচুর বিদেশি পর্যটক এখন সিলেটে আসেন। একটি চমৎকার দর্শনীয় স্থান হিসেবে সিলেট বিবেচিত হচ্ছে। এ খাতে বিনিয়োগ সিলেটের উন্নয়নের পথকে প্রশস্ত করবে। ’

দেশে চামড়াশিল্পের উন্নয়নের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এখনো অমাদের এ শিল্পের জন্য বিদেশ থেকে কাঁচামাল আমদানি করতে হয়।

এ ক্ষেত্রে সিলেটে এ খাতে বিনিয়োগ করা যেতে পারে। তথ্য-প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগের ওপর গুরুত্বারোপ করে মন্ত্রী বলেন, ‘এ খাতে বিনিয়োগ বাড়ানো গেলে আমরা দক্ষ জনশক্তি পাব। ’

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি এ কে আবদুল মোমেন, সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, গ্রিনডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স কম্পানির প্রতিষ্ঠাতা ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসির এ চৌধুরী, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান হাফিজ আহমদ মজুমদার, এফবিসিসিআইয়ের প্রথম সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম মহিউদ্দিন, পরিচালক শেখ ফজলে ফাহিম, রূপালী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ড. আহমদ আল কবির, ৫০ বছর পূর্তি উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক খন্দকার শিপার আহমদ প্রমুখ।

এর আগে সকাল ১০টায় চেম্বার ভবনের সামনে থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। এটি নগরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।


মন্তব্য