kalerkantho


৪২ পয়েন্ট কমল ডিএসই সূচক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



মুদ্রানীতি ঘোষণার দিন থেকেই নিম্নমুখী হয়েছে দেশের দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই)। দুই বাজারেই ধারাবাহিকভাবে কমছে লেনদেন ও সূচক।

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস গতকাল রবিবারও সূচক ও লেনদেন কমেছে।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৭৭ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। আর মূল্যসূচক কমেছে ৪২ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৭৪৫ কোটি ৯৯ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছিল ১০৮ পয়েন্ট। সেই হিসাবে লেনদেন কমেছে ৬৮ কোটি তিন লাখ টাকা। একই সঙ্গে ৬৯ শতাংশ কম্পানির শেয়ারের দামও কমেছে।  

গতকাল খাতভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা যায়, ব্যাংক খাতে লেনদেন আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে। মোট লেনদেনে ব্যাংকের অবদান ১৩৬ কোটি ১৪ লাখ টাকা বা ১৮.৭১ শতাংশ।

যা আগের দিনের চেয়ে ১.৭৭ শতাংশ বেশি। আর্থিক খাতের লেনদেন বেড়েছে ২.৩৮ শতাংশ বা ৬৫ কোটি ৩০ লাখ টাকা। আগের দিন এই খাতে লেনদেন হয়েছিল ৫৬ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। আর প্রকৌশল খাতে লেনদেন হয়েছিল ১১৫ কোটি ২৬ লাখ টাকা আর গতকাল লেনদেন হয়েছে ১২৯ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। গত ২৯ জানুয়ারি চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধের মুদ্রানীতি ঘোষণার পর থেকেই নিম্নমুখী হয়েছে পুঁজিবাজার। গতকাল দিনশেষে প্রধান সূচক ৪২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৩২২ পয়েন্ট। ডিএসইএস সূচক ৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় এক হাজার ২৪৯ পয়েন্ট আর ডিএস-৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় এক হাজার ৯৫২ পয়েন্টে। লেনদেন হওয়া ৩২৮টি কম্পানির মধ্যে বেড়েছে ৮০টি, কমেছে ২২৭টি ও অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টি কম্পানির শেয়ারের দাম। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪১ কোটি ৫০ লাখ টাকা আর মূল্যসূচক কমেছে ৯৬ পয়েন্ট।


মন্তব্য