kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পেঁয়াজের দাম অর্ধেকে নেমেছে রাজবাড়ীতে

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



রাজবাড়ীতে পেঁয়াজের বাজারে ধস নেমেছে। দাম নেমে এসেছে অর্ধেকে।

ফলে চাষি ও ব্যবসায়ীরা লোকসানের মুখে পড়েছে। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুরে গিয়ে দেখা যায়, দাম অর্ধেকে নেমে এসেছে। মৌসুমের শুরুতে মণপ্রতি এক হাজার থেকে দেড় হাজার টাকা বিক্রি হলেও গতকাল বুধবার সেখানে ৫০০ থেকে ৭০০ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। উল্লেখ্য, রাজবাড়ী জেলায় দেশের মোট চাহিদার প্রায় ৬ শতাংশ পেঁয়াজ উৎপন্ন হয়ে থাকে।

ওই বাজারে আসা শরিফুল ইসলাম নামের এক কৃষক জানান, মৌসুমের শুরুতে পেঁয়াজ বিক্রি না করে তিনি ঘরে মজুদ করে রেখেছিলেন। তাঁর আশা ছিল, বছরের এই সময়ে এসে পেঁয়াজের দাম বাড়লে তিনি লাভবান হবেন। লাভ তো দূরের কথা, এখন পেঁয়াজ চাষের ব্যয়ই তিনি ঘরে তুলতে পারছেন না। প্রতি মণ পেঁয়াজ তিনি বাজারে এনে ৫০০ টাকায় বিক্রি করেছেন। অথচ প্রতি মণ পেঁয়াজ উৎপাদন করতে বীজ, সার, কীটনাশক, শ্রমিক মিলিয়ে খরচ হয়েছে এক হাজার ২০০ টাকা।

ব্যবসায়ী চাঁদ আলী মিয়া অভিযোগ করেন, প্রতিবেশী দেশ ভারত থে?কে এলসির মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণে পেঁয়াজ আমদানি হওয়ায় দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে। সরকার পেঁয়াজ চাষি ও ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করে হলেও আমদানি কমিয়ে দেশি পেঁয়াজ বিক্রির ব্যবস্থা করলে ভালো হতো।

বহরপুর ইউনিয়নের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুর রব জানান, বহরপুর এলাকায় গত বছরের চেয়ে এ বছর বেশি জমিতে পেঁয়াজের আবাদ হয়েছিল। তা ছাড়া আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় পেঁয়াজের উৎপাদনও ভালো হয়েছিল। তবে দেশি পেঁয়াজের কদর কমে যাওয়ায় দাম পড়ে গেছে।


মন্তব্য