kalerkantho


‘পাট ব্যবসায় ঋণ দিতে চায় না ব্যাংক’

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

৩ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



পৃথিবীর প্রায় অর্ধেক দেশে পাট পণ্য ব্যবহার করা হয়। বাংলাদেশ ওই সব দেশে পাট সরবরাহ করে থাকে।

এর পরও ব্যাংক ঋণ, রপ্তানি জটিলতা, পাটের বাজার খারাপ থাকাসহ বিভিন্ন কারণে এ ব্যবসা ভালো যাচ্ছে না। গতকাল রবিবার নারায়ণগঞ্জ শহরের বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশনের কার্যালয়ের আফজাল মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশনের ৫০তম সাধারণ সভা ও নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির সংবর্ধনা উপলক্ষে ওই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী কমিটির সদস্য হারুন অর রশিদ বলেন, ‘পৃথিবীর প্রায় অর্ধেক দেশ পাট ব্যবহার করে। এসব দেশে একমাত্র রপ্তানিকারক বাংলাদেশ। একমাত্র রপ্তানিকারক দেশ হয়েও পাট ব্যবসায় দিনের পর দিন ব্যবসায়ীদের ক্ষতি হচ্ছে। মূলত আমরা রপ্তানিকারকরা এক হয়ে কাজ না করার কারণে লোকসান হয়। ব্যাংকের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে আমরা যাঁরা ব্যবসা করি তাঁদের অবস্থাও অনেক খারাপ। কারণ ব্যাংক এখন পাট ব্যবসায় ঋণ দিতে চায় না। এ ছাড়া যাদের দেয় তাদের বিভিন্নভাবে হয়রানি করা হয়। ’

বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান শেখ সাঈদ আলী বলেন, ‘রপ্তানিসহ বিভিন্ন কারণে আমরা পাট ব্যবসায়ীরা বিপর্যয়ের মধ্যে আছি। একটা ডুবন্ত তরী নিয়ে কাজ করছি। তবে এ ডুবন্ত তরীর দিকনির্দেশনা দিয়ে আশার পথ দেখিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি পাটের প্রতি ও পাট ব্যবসায়ীদের প্রতি আন্তরিক থাকায় আগামীতে পাটের ব্যবসা আরো ভালো হবে। ’

বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান শেখ সাঈদ আলীর সভাপতিত্বে ও সদস্যসচিব আব্দুল কাইয়ুমের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান মো. আব্দুস সোবহান শরীফ, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য গোপাল চন্দ্র তালুকদার, এফ এম শরিফুজ্জামান প্রমুখ।


মন্তব্য