kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


উৎপাদনশীলতা দিবস আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



জাতীয় পর্যায়ে সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের শিল্প, কৃষি ও সেবাসহ বিভিন্ন খাতে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে আজ রবিবার জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস উদ্যাপন করা হবে। এ উপলক্ষে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও) নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ সকাল ৮টায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তন সংলগ্ন সড়ক থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হবে। কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর নেতৃত্বে এতে শিল্প ও কৃষি মন্ত্রণালয় এবং বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, শিল্প-কারখানার মালিক, শ্রমিক ও কর্মচারীরা অংশ নেবেন। সকাল ১০টায় রাজধানীর এফবিসিসিআই মিলনায়তনে ‘টেকসই প্রবৃদ্ধির জন্য উৎপাদনশীলতা অপরিহার্য’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। এ সেমিনারের আয়োজন করেছে এনপিও।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী পৃথক বাণী দিয়েছেন। এ ছাড়া দিবসের গুরুত্ব তুলে ধরে বাংলাদেশ টেলিভিশন টক শো সম্প্রচার করবে। জাতীয় দৈনিকে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হবে। পাশাপাশি মোবাইল ফোন অপারেটররা খুদে বার্তা ও ভয়েস মেইল প্রেরণ করে উৎপাদনশীলতা বিষয়ে জনগণকে সচেতন করবে। দিবসটি উপলক্ষে ইতিমধ্যে এনপিও প্রচার সামগ্রী, বুকলেট, বর্ণিল স্যুভেনির ও পোস্টার প্রকাশ করেছে। উল্লেখ্য, এ বছর জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবসের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে, ‘টেকসই প্রবৃদ্ধির জন্য উৎপাদনশীলতা অপরিহার্য’।

জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস উপলক্ষে এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, সরকার ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্য-আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করতে বদ্ধপরিকর। সে লক্ষে দেশের সকল সেক্টরে উন্নয়ন বেগবান করার পাশাপাশি উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি আবশ্যক। উৎপাদনশীলতা দিবসের কর্মসূচি এ ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।


মন্তব্য