kalerkantho


বিআইডিএ ও এনবিআর বিনিয়োগ বাড়াতে একসঙ্গে কাজ করবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



দেশি-বিদেশি বিনিয়োগে উৎসাহ প্রদান ও গুণগত মান বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিআইডিএ) ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) যৌথভাবে কাজ করার অঙ্গীকার করে কিছু উদ্যোগ নিয়েছে।

গতকাল বৃহস্প্রতিবার এনবিআরের সম্মেলনকক্ষে এ বিষয়ে অংশীদারির ভিত্তিতে সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়।

বািইডিএর নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী মো. আমিনুল ইসলাম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। রাজস্ব বোর্ডের পরিচিতি, প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো ও মানবসম্পদ, রাজস্ব আদায় পরিস্থিতি, গুরুত্বপূর্ণ অর্জনগুলো, সংস্কার ও আধুনিকায়ন কার্যক্রমের ওপর কয়েকটি মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়।

বাংলাদেশে বিনিয়োগ কৌশল প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের বিষয়ে বিআইডিএ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে এনবিআরের কাছে সার্বিক সহযোগিতা চেয়ে পার্টনারশিপ ডায়ালগে সুনির্দিষ্ট বিষয়ের ওপর একগুচ্ছ প্রস্তাব দেওয়া হয়। প্রস্তাবগুলোর মধ্যে রয়েছে বৈদেশিক বিনিয়োগকারীরা তাদের মূলধনের অংশ হিসেবে মূলধনী যন্ত্রপাতি বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ইমপোর্ট পারমিট দ্বারা খালাস করে নিতে পারেন। স্থানীয় বিনিয়োগকারীরা তাদের অনুকূলে মূলধনী যন্ত্রপাতি রপ্তানিকারকরা প্রেরণ করলে মূলধনী যন্ত্রপাতি ছাড়করণের জন্য বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কোনো ইমপোর্ট পারমিট ইস্যু করতে পারে না। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ইমপোর্ট পারমিট স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের অনুকূলে বৈদেশিক বিনিয়োগকারীদের মতো ব্যবস্থা গ্রহণ করে তার মাধ্যমে মূলধনী যন্ত্রপাতি ছাড়করণের ব্যবস্থা নেওয়া। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ইমপোর্ট পারমিট স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের অনুকূলে বৈদেশিক বিনিয়োগকারীদের মতো ব্যবস্থা গ্রহণ করে যন্ত্রাংশ ছাড়করণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া। বর্তমানে রিসাইক্লিং শিল্পের জন্য কাঁচামাল হিসেবে অব্যবহূত কাটিং ফোম, পুরনো টায়ার, প্লাস্টিক পণ্যাদি আমদানির ক্ষেত্রে নিষিদ্ধ পণ্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এসব পণ্য অনেক শিল্পোদ্যোক্তা ভ্যালু এডিশনের মাধ্যমে দেশে শিল্পায়নে অবদান রাখার প্রয়াস নিয়ে থাকে। এ পণ্যগুলো আমদানি করার পর তা দ্রুত ছাড়করণের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া ইত্যাদি।

রাজস্ব বোর্ডের পক্ষ থেকেও বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের কাছে তিনটি প্রস্তাব করা হয়। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী মো. আমিনুল ইসলাম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, এনবিআর অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে একাধারে রেগুলেশন, উন্নয়ন ও সহায়তা প্রদানের মতো তিনটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ সম্পন্ন করেছে।  


মন্তব্য