kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


‘শিল্প-কারখানায় সেফটি কমিটি গঠন করতে হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



শ্রমিকদের নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতকরণে কারখানা পর্যায়ে সেফটি কমিটি গঠন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক। এ ছাড়া কারখানার নিরাপত্তা বিষয়ে মালিক-শ্রমিকদের আরো সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

গতকাল রাজধানীর হোটেল পূর্বাণীতে শ্রম পরিদর্শন কৌশলপত্রের খসড়া উপস্থাপন কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) সহযোগিতায় এ কর্মশালায় কৌশলপত্রের খসড়া উপস্থাপন করেন শ্রম মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব খন্দকার মোস্তান হোসেন।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, নিরাপদ কর্মপরিবেশ তৈরির বিষয়ে আপসের কোনো সুযোগ নেই। কল-কারখানার নিরাপত্তার বিষয়ে অনেক মালিক-শ্রমিকের সচেতনতার অভাব রয়েছে।

তিনি বলেন, সারা দেশে এ পর্যন্ত মাত্র ১৪২টি কারখানায় সেফটি কমিটি গঠিত হয়েছে। কারখানা পর্যায়ে সেফটি কমিটি গঠনে এবং সচেতনতা বৃদ্ধিতে আঞ্চলিক পর্যায়ে কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। এ ছাড়া তিনি আঞ্চলিক পর্যায়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে আলোচনা সভা আয়োজনের ওপর জোর দেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, তৈরি পোশাকশিল্পের বাইরে অন্য কল-কারখানাগুলোকেও নিয়মিত পরিদর্শনের আওতায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তবে লাখ লাখ কারখানা নিয়মিত পরিদর্শন করা কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের একার পক্ষে কঠিন। এ জন্য কারখানা মালিকদের নিজ নিজ কারখানাগুলোকে পরিদর্শনে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মিকাইল শিপার, কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক সৈয়দ আহমেদ, আইএলও ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর গগন রাজবনডারি।


মন্তব্য