kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কর্মকর্তাদের দক্ষতা বাড়াতে এনবিআরের কর্মশালা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



রাজস্ব সংগ্রহ, করদাতাবান্ধব পরিবেশ তৈরি এবং সকল পর্যায়ে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। এ লক্ষ্যে কৌশল বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে গতকাল মঙ্গলবার ‘অডিট ব্যবস্থাপনার মানোন্নয়ন’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয় এনবিআরের সম্মেলনকক্ষে।

এ কর্মশালায় অডিট ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে কর্মকর্তাদের দক্ষতা উন্নয়ন, পারস্পরিক অভিজ্ঞতা ও তথ্য বিনিময়ে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়।

দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় সরকারি হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি প্রধান অতিথি এবং উপ-মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক (সিনিয়র) আবুল ফয়েজ মো. আবিদ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালায় অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান সভাপতিত্ব করেন। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্যসহ আয়কর, শুল্ক ও ভ্যাট বিভাগের অডিট ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন এতে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর বলেন, অডিট আপত্তিগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করা সম্ভব হবে। রাজস্ব সংগ্রহের কাজে গতিশীলতা আসবে।

বিশেষ অতিথি বলেন, অডিট বিভাগ ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সরকারের আর্থিক সেক্টরে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। এ ধরনের কর্মশালা আয়োজনের মাধ্যমে উভয় দপ্তরের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত হবে; রাজস্ব ফাঁকি রোধের মাধ্যমে জাতীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে সক্ষম হবে।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, উন্নয়নের অক্সিজেন হলো রাজস্ব। জনগণ রাষ্ট্রের রাজস্ব ভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করার জন্য রাজস্ব প্রদান করেন। তাই তাঁদের প্রদেয় রাজস্ব যেন সরকারি কোষাগারে যথাযথভাবে জমা পড়ে তার জন্য এনবিআর ও অডিট বিভাগ অংশীদারির ভিত্তিতে কাজ করছে। রাজস্ব কর্মকর্তাদের অডিটসংক্রান্ত প্রশিক্ষণ গ্রহণের মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে। ফলে একদিকে  যেমন অডিট আপত্তির সংখ্যা হ্রাস পাবে, তেমনি বিদ্যমান আপত্তিগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করা সম্ভব হবে।


মন্তব্য