kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভোজ্য তেলের বাজারে আসছে বসুন্ধরা গ্রুপ

পরিশোধন প্রকল্প বাস্তবায়নকাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ভোজ্য তেলের বাজারে আসছে বসুন্ধরা গ্রুপ

ভোজ্য তেল পরিশোধন প্রকল্প বাস্তবায়নকাজের উদ্বোধন করেন বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান। আরো উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ছবি : কালের কণ্ঠ

বাণিজ্যিক বৈচিত্র্যায়ণের ধারাবাহিকতায় দেশের খাদ্যপণ্যের বাজারে এবার ভোজ্য তেল নিয়ে আসছে বসুন্ধরা গ্রুপ। আটা, ময়দা, সুজিসহ বেশ কিছু খাদ্যপণ্য বাজারে এনে ইতিমধ্যে বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড হয়ে ওঠা বসুন্ধরা গ্রুপ তৈরি করেছে শক্তিশালী ভোক্তা আস্থা।

গতকাল মঙ্গলবার বসুন্ধরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল কোয়ার্টার-২-এ ভোজ্য তেল পরিশোধন প্রকল্প বাস্তবায়ন কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান। বসুন্ধরা মাল্টি ফুড প্রোডাক্টস লিমিটেড (বিএমএফ) ঢাকার অদূরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের পানগাঁও বসুন্ধরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে গড়ে তুলতে যাচ্ছে দৈনিক দুই হাজার মেট্রিক টন পরিশোধন ক্ষমতাসম্পন্ন এ ভোজ্য তেল কারখানা। সিঙ্গাপুরভিত্তিক প্রতিষ্ঠান লিপিকো টেকনোলজি এ প্রকল্প বাস্তবায়নে কারিগরি সহায়তা দিচ্ছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা গ্রুপের সিনিয়র ডিএমডি মো. বেলায়েত হোসাইন, ডিএমডি মো. মোস্তাফিজুর রহমান, সিমেন্ট সেক্টরের ডিএমডি ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম মাহবুব-উজ-জামান, বসুন্ধরা গ্রুপের উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) মো. মাহবুব হায়দার খান, বিএমএফ সেলস এবং মার্কেটিং প্রধান মো. রাশিদুল আহসান, মিডিয়া উপদেষ্টা আবু তৈয়ব এবং লিপিকোর প্রতিনিধি এ কে এম ফখরুল আলম। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে বসুন্ধরা গ্রুপের আরো অনেক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, আস্থা আর বিশ্বাসে দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্প গ্রুপ বসুন্ধরা। এ কম্পানি দেশের যে সেক্টরে গেছে সেখানেই সর্বোত্কৃষ্ট মানসম্পন্ন পণ্য এনে সুনাম কুড়িয়েছে। এবার ভোজ্য তেলের বাজারেও প্রবেশ করতে যাচ্ছে বিশ্বস্ত এ ব্র্যান্ড। তাঁরা বলেন, বর্তমানে  দেশের ভোজ্য তেলের বাজার বছরে প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকার। এ বাজারে বসুন্ধরার মতো একটি বিশাল প্রতিষ্ঠান প্রবেশ করা মানে সেখানে পণ্যের গুণগত মান রক্ষায় প্রতিযোগিতা আরো তীব্র হবে। তাই এ বাজারে বসুন্ধরা আসা মানে এটা ভোক্তাদের সৌভাগ্য। এতে বাজারে পণ্যের মান যেমন বাড়বে, তেমনি তৈরি হবে ন্যায্য প্রতিযোগিতা।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, দৈনিক দুই হাজার মেট্রিক টন (পাম ও সয়াবিন) পরিশোধন ক্ষমতাসম্পন্ন অত্যাধুনিক এ পরিশোধন মিলটি দেশের ভোক্তাদের চাহিদা অনুযায়ী আন্তর্জাতিক গুণগত মানসম্পন্ন পণ্য বাজারজাত করার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে। তেল পরিশোধন ও বাজারজাতকরণের সব সুবিধাসম্পন্ন এ কারখানা খুব দ্রুতই সফল বাস্তবায়নে রূপ নেবে বলে আশা প্রকাশ করা হয়।

 


মন্তব্য