kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ওয়েবসাইটজুড়ে কমপ্লায়েন্স নিয়ে স্তুতিবাক্য

ব্র্যান্ডেড ৩১ কম্পানি টাম্পাকোর ক্রেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ব্র্যান্ডেড ৩১ কম্পানি টাম্পাকোর ক্রেতা

ঝুঁকিপূর্ণ বয়লার বিস্ফোরণে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডে ২৪ শ্রমিকের প্রাণ গেলেও টঙ্গীর টাম্পাকো ফয়েলসের ওয়েবসাইটজুড়ে কারখানার কমপ্লায়েন্স নিয়ে শ্রুতিবাক্যের শেষ নেই। কারখানাটির শতভাগ শ্রমিককে অগ্নিনিরাপত্তা ও দ্রুত সহায়তা (ফার্স্ট এইড) বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কথা বলা আছে ওয়েবসাইটে।

কারখানার নিরাপদ কর্মপরিবেশ, কর্মীর স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নীতি থাকার কথাও বলা আছে তাতে। নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার নিশ্চয়তার কথাও বলা আছে সেখানে।

ভেতরে কর্মপরিবেশ যেমনই থাকুক, বাইরে ঢাকঢোল পিটিয়ে জাতীয় ও বহুজাতিক ৩১টি কম্পানির পণ্যের মোড়ক সরবরাহের কাজ করছে টাম্পাকো। কম্পানিটির ভেতরের নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার বদলে বাইরে প্রচারে তত্পর ছিল বেশি। কারখানার শ্রমিকদের জন্য সৌজন্য নাশতা ও চা বা কফি দেওয়ার ব্যবস্থা থাকার কথাও বলা হয়েছে তাদের ওয়েবসাইটে। অফিস ও কারখানার ভেতর থাকা নামাজের জায়গায় যে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থা রয়েছে, তাও বলা হয়েছে তাতে। এমনকি কম্পানির সিদ্ধান্ত গ্রহণে কর্মীদের মতামত নেওয়া হয় বলেও প্রচার পাচ্ছে সেখানে।

নেসলে বাংলাদেশ লিমিটেডের ‘কিটক্যাট’ কিংবা ব্রিটিশ-অ্যামেরিকান টোব্যাকোর সিগারেটের প্যাকেট উত্পাদন হয় টাম্পাকোতে। আবুল খায়ের গ্রুপ, আকিজ গ্রুপ, প্রাণ, ইস্পাহানি কিংবা নাবিস্কো বিস্কুট অ্যান্ড ব্রেড ফ্যাক্টরিও টাম্পাকোর কাছ থেকে পণ্যের মোড়ক কিনে থাকে।

কম্পানিটির ক্রেতার তালিকায় আরো রয়েছে কোকোলা ফুড প্রোডাক্টস, বিডি ফুডস, এসেনশিয়াল ড্রাগস কম্পানি, মেরিডিয়ান ফুডস, ফুওয়াং ফুডস, ইউনিভার্সাল ফুডস, আবদুল মোনেম, বাংলা-জার্মান ল্যাটেক্স কম্পানি, শাহ ডেইরি ফুডস, মোল্লা সল্ট, ভিটালাক ডেইরি অ্যান্ড ফুড ইন্ডাস্ট্রি, প্রিন্স ফুডস, হক বিস্কুট অ্যান্ড ব্রেড ফ্যাক্টরি, জনতা বিস্কুট অ্যান্ড ব্রেড ফ্যাক্টরি, এটিএন ফুড অ্যান্ড কনজ্যুমার প্রোডাক্ট, প্রমি কনজ্যুমারস প্রোডাক্ট, আল-কাদ ল্যাবরেটরিজ, নিউট্রিয়ন ফুডস, নূর ফুডস, গ্লোব বিস্কুট অ্যান্ড ডেইরি মিল্ক, সিদ্দিক ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রোবেস ইন্ডাস্ট্রিজ, আফতাব ফুড, দ্য লালমাই ও আল-আমিন সুইট অ্যান্ড ক্র্যাকার্স।

এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে সবচেয়ে ভালো মানের প্যাকেজিং পণ্য উত্পাদনের লক্ষ্য দিয়ে টাম্পাকো ফয়েলস লিমিটেডের (টিএফএল) যাত্রা শুরু ১৯৭৮ সালে তামাক পণ্যের মোড়ক উত্পাদনের মধ্য দিয়ে। বাংলাদেশে মোড়ক উত্পাদনের এটিই প্রথম কারখানা। পরবর্তী সময়ে আরো বেশ কিছু কারখানা একই ধরনের পণ্য উত্পাদন করলেও টাম্পাকোর দাবি, বাংলাদেশের প্যাকেজিং শিল্পে তাদের নামই সবচেয়ে বেশি।

কম্পানিটির মুনাফায় কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার বদলে নিজের ও পরিবারের সদস্যদের নামে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে পরিচালনা করছেন প্রতিষ্ঠানটির মালিক ড. সৈয়দ মকবুল হোসাইন। তিনি কম্পানিটির করপোরেট স্যোশাল রেসপনসিবিলিটির (সিএসআর) অর্থে ড. সৈয়দ মকবুল হোসাইন উচ্চ বিদ্যালয়, সাজেদা পারভীন হোসাইন উচ্চ বিদ্যালয়, সৈয়দ তানভীর হোসাইন একাডেমি, সৈয়দা আদিবা হোসাইন উচ্চ বিদ্যালয়, সৈয়দা ফারহানা হোসাইন উচ্চ বিদ্যালয় গড়ে তুলে পরিচালনা করছেন।


মন্তব্য