kalerkantho

ঢাকা মোটর শো শুরু

অংশ নিচ্ছে ১৪ দেশের প্রতিষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



ঢাকা মোটর শো শুরু

বসুন্ধরা কনভেনশন সিটিতে শুরু হওয়া ঢাকা মোটর শোতে উত্তরা মোটরসের শোরুম উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

শুরু হলো মোটর বাইক ও অটো যন্ত্রাংশের তিন দিনের প্রদর্শনী ‘ঢাকা মোটর শো ২০১৬’, ‘ঢাকা বাইক শো ২০১৬’ এবং ‘ঢাকা অটো পার্টস শো ২০১৬’। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোডে ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের প্রধান অতিথি হিসেবে এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ প্রকৌশলগত সমস্যা সমাধানে অনেকটা এগিয়ে গেছে। কিন্তু আইন মানা এবং সচেতনতার দিক থেকে এখনো পিছিয়ে। ফলে রাস্তায় দুর্ঘটনা এখনো বেশি ঘটে। অথচ জাপানে আমাদের চেয়ে অনেক বেশি গাড়ি থাকলেও সেখানে তেমন দুর্ঘটনা হয় না। কারণ তাদের দেশের জনগণ আইন মানে এবং সচেতন। ’ তিনি আরো বলেন, দেশের অনেক স্থানে এখনো মোটরসাইকেলে আরোহীরা হেলমেট পরে না। অনেক প্রচারণার পর ঢাকার মোটরসাইকেল আরোহীর অনেকেই এখন পরে। তিনি মোটরসাইকেল আরোহীদের দুজনের বেশি না চড়া এবং দুজনকেই হেলমেট পরার পরামর্শ দেন। রাস্তায় রং সাইডে গাড়ি না চালানোর পরামর্শ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, অনেকে আছে পতাকাবাহী গাড়ি নিয়ে রং সাইড দিয়ে গাড়ি চালায়। অথচ এটা ঠিক নয়, এর কারণেও অনেক দুর্ঘটনা ঘটে, রাস্তার শৃঙ্খলা নষ্ট হয়। তিনি বলেন, ‘যত সমস্যাই হোক, এটা আমি নীতিগতভাবে সমর্থন করি না। ’

দেশের মোটরসাইকেলগুলোকে বৈধতায় আনার উদ্যোগ নিয়েছেন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, দেশের অনেক মোটরসাইকেল এখনো রেজিস্ট্রেশন ছাড়া চলে। ভোক্তাদের অভিযোগ, রেজিস্ট্রেশন ফি বেশি বলে তারা এই গাফিলতি করে। তিনি বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি আগামী বাজেটে রেজিস্ট্রেশন ফি কিছুটা কমিয়ে আনতে। সেই সঙ্গে কিস্তিতে গ্রহণের জন্য সুপারিশ করব অর্থমন্ত্রীকে। ’ দেশের রাস্তায় ট্রাফিক জ্যামের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, দেশের অনেক পরিবার আছে যারা একই  পরিবার, কিন্তু ১০টি পর্যন্ত গাড়ি চালায়। এটা অযৌক্তিক। এসব গাড়ির জন্য রাস্তায় জ্যাম লেগে থাকে। তিনি এসব পরিবারকে ছোট গাড়ি কম ব্যবহার করে গণপরিবহন ব্যবহার করার পরামর্শ দেন। তিনি জানান, আগামী সংসদ অধিবেশনে গাড়ি ব্যবহারকারীদের জন্য নীতিমালা করা হবে। এ ছাড়া ১৯৮৩ সালের অধ্যাদেশ সংশোধন করে মালিক ও গাড়ির চালকের জন্য শাস্তির বিধান রেখে আইন করা হবে। সড়ক ও যোগাযোগ খাতে অভূতপূর্ব উন্নয়নের কথা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, ‘দেশে আজ অনেক ফ্লাইওভার হয়েছে। এর ফলে ট্রাফিক জ্যামও কমে এসেছে। এসব দেখলে এখন অনেক আনন্দ লাগে। ’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এফবিসিসিআই প্রথম সহসভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দীন বলেন, ‘দেশে বর্তমানে কিছু মোটরসাইকেলের প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেসব প্রতিষ্ঠান দেশেই মোটরসাইকেল অ্যাসেম্বলিং করছে। আমার বিশ্বাস একসময় বাংলাদেশেই এই মোটরসাইকেল উত্পাদন করা হবে। ’ সেমস গ্লোবাল এবং সেমস বাংলাদেশের আয়োজনে ২ এপ্রিল পর্যন্ত এই প্রদর্শনী চলবে বলে জানান সেমস গ্লোবালের প্রেসিডেন্ট মেহরুন এন ইসলাম। তিনি জানান, বিশ্বের প্রায় ১৪টি দেশ থেকে ব্র্যান্ড নিউ গাড়ি, মোটরবাইক ও অটো যন্ত্রাংশশিল্পের উত্পাদক ও বিপণনকারী খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানগুলো এই মেলায় অংশগ্রহণ করবে। প্রদর্শনীতে প্রায় ২০০টিরও বেশি স্টল থাকছে। অনুষ্ঠানে ছিলেন ডিসিসিআইয়ের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হুমায়ুন রশীদ, উত্তরা মোটরসের এমডি মতিউর রহমান, মারকো শিপিং কম্পানির (বাংলাদেশ) ডিএমডি লে. কর্নেল (অব.) মো. রাজিবুল ইসলাম।


মন্তব্য