kalerkantho


সিপিডির প্রাক-বাজেট সংলাপ

বগুড়ায় ক্ষুদ্র শিল্পোন্নয়নে প্রয়োজন সমন্বিত উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া   

২৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বগুড়ার ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের (এসএমই) উন্নয়ন ও বিকাশ তরান্বিত করতে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে সমন্বিত উদ্যোগের প্রয়োজন। বগুড়া বিসিক শিল্পনগরী ও গ্রামীণ গুচ্ছ অঞ্চলগুলোর প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়ন জরুরি। সেই সঙ্গে কৃষি জমির ক্ষতি না করে উদ্যোক্তাদের জন্য প্রয়োজনীয় জমির ব্যবস্থা করতে হবে।

সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) প্রাক-বাজেট সংলাপে এসব কথা বলেন বক্তারা।

গতকাল বৃহস্পতিবার বগুড়া পর্যটন মোটেল কনফারেন্স হলে সিপিডি, সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) এবং জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি বাংলাদেশের (নাসিব) যৌথ উদ্যোগে ‘বগুড়া অঞ্চলের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উন্নয়ন-চ্যালেঞ্জ ও করণীয়’ শীর্ষক একটি প্রাক-বাজেট সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। আসছে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে বগুড়ার মানুষের দাবির প্রতিফলনের লক্ষ্যে সংলাপটি আয়োজন করা হয়। সংলাপের শুরুতে সিপিডির অতিরিক্ত গবেষণা পরিচালক ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম জাতীয় বাজেট এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের বিকেন্দ্রায়িত উন্নয়ন-বগুড়ার গুচ্ছ অঞ্চলের অভিজ্ঞতা শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি বগুড়া অঞ্চলের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের অবস্থা, এই খাতের চ্যালেঞ্জগুলো এবং শিল্পের বিকাশে করণীয় দিকগুলো তুলে ধরেন। সংলাপে কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মান্নান এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বগুড়ার জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন, পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট এ কে এম মাহাবুবর রহমান। বগুড়া চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাসুদুর রহমান মিলন।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে নাসিব, বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি টি জামান নিকেতা এবং সিপিডির নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। সংলাপে সভাপতিত্ব করেন সনাকের এ কে এম বজলুল করিম বাহার।


মন্তব্য