kalerkantho


নৈতিকতার বেশ অভাব বীমা শিল্পে: অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নৈতিকতার বেশ অভাব বীমা শিল্পে: অর্থমন্ত্রী

বীমা শিল্পে নৈতিকতার বেশ অভাব রয়েছে বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। জীবন বীমায় এটি সব থেকে বেশি বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

গতকাল বুধবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তিন দিনের বীমা মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী বলেন, অনিয়ন্ত্রিতভাবে গড়ে ওঠায় বীমা শিল্পে খারাপ অবস্থা তৈরি হয়েছিল। তবে পরিস্থিতি বদলাচ্ছে। ২০১০ সালে বীমা আইন এবং বীমা নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ আইন প্রণয়নের পর বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) যাত্রা শুরু করে। এরপর থেকেই বীমা খাতের দ্রুত বিকাশ ঘটছে।

মুহিত বলেন, ‘আমাদের দেশে সাধারণ বীমা, জীবন বীমার এক-চতুর্থাংশ। আমরা স্থাপনা বীমা করি শুধু বাণিজ্যিক ভবনের। ঘরবাড়ির বীমা করি না। এ কারণে ঘরবাড়ি থেকে কিছু চুরি হলে তার ক্ষতিপূরণ পাওয়া যায় না। ’ অনুষ্ঠানে আইডিআরএ চেয়ারম্যান এম শেফাক আহমেদ বলেন, বীমা শিল্প দীর্ঘদিন অবহেলিত ছিল।

তাই অর্থনীতিতে নির্দিষ্ট ভূমিকা পালন করতে পারেনি। সরকার বীমা আইন করায় এই শিল্পে নতুন যাত্রা শুরু হয়। নিয়ম নীতি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বিদ্যমান বিশৃঙ্খলা ও অনিয়ম দূর করে দৃঢ় ভিত্তির ওপর এই শিল্পকে প্রতিষ্ঠিত করার কাজ করছে আইডিআরএ।

সভাপতির বক্তব্যে এম শেফাক আহমেদ বলেন, ‘জীবন বীমা কম্পানিতে পলিসিহোল্ডারদের প্রিমিয়াম একটি আমানত। চুক্তি অনুযায়ী পলিসির মেয়াদ শেষে লাভসহ এ টাকা পরিশোধ করতে হয়। এ জন্য বীমা আইনে কম্পানির ব্যবসা সংগ্রহ ও কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ব্যয়ের মাত্রা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। পরিতাপের বিষয় অধিকাংশ কম্পানি এ বিধান অমান্য করে পলিসিহোল্ডারের আমানত ব্যয় করছে। ফলে পলিসির মেয়াদ শেষে লাভ তো দূরের কথা অনেক কম্পানি প্রিমিয়ামের টাকাও ফেরত দিতে পারছে না। ’

অনুষ্ঠানে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী মো. আবদুল মান্নান এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. ইউনুসুর রহমান, বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিআইএ) সভাপতি শেখ কবির হোসেন, বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স ফোরামের সভাপতি ও পপুলার লাইফের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বি এম ইউসুফ আলী উপস্থিত ছিলেন।

তিন দিনের মেলায় ৫০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। আগামী শুক্রবার পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই মেলা চলবে। মেলায় প্রতিদিন র্যাফেল ড্র, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বীমা দাবির চেক হস্তান্তরসহ নানা কর্মসূচি থাকছে।


মন্তব্য