kalerkantho


জামালপুরে বসুন্ধরা সিমেন্টের রাজমিস্ত্রি কর্মশালা

জামালপুর প্রতিনিধি   

২২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



জামালপুরে বসুন্ধরা সিমেন্টের রাজমিস্ত্রি  কর্মশালা

বসুন্ধরা সিমেন্টের উদ্যোগে গতকাল জামালপুর ও ইসলামপুরে স্থানীয় রাজমিস্ত্রিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত পৃথক কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা। ছবি : কালের কণ্ঠ

বসুন্ধরা সিমেন্টের উদ্যোগে সোমবার জামালপুর ও ইসলামপুরে স্থানীয় রাজমিস্ত্রিদের নিয়ে পৃথক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্মশালায় রাজমিস্ত্রিদের নির্মাণশিল্পে ব্যবহৃত ইট, সিমেন্ট, রডসহ বিভিন্ন পণ্যের গুণগত মান, সঠিক পরিমাপ ও প্রয়োগের ওপর প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

এ ছাড়া ভবন নির্মাণে শ্রমিকদের সতর্কতামূলক নানা বিষয়ে আলোকপাত করা হয়।

জামালপুর জেলা শহরের মধুপুর রোডের জিগাতলা এলাকায় বসুন্ধরা সিমেন্টের পরিবেশক জনি ট্রেডিং করপোরেশন কার্যালয়ে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। জনি ট্রেডিংয়ের স্বত্বাধিকারী তারেক আহম্মেদ খান জনির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বসুন্ধরা সিমেন্টশিল্পের এজিএম প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান। বিশেষ অতিথি ছিলেন বসুন্ধরা সিমেন্টশিল্পের ডেপুটি ম্যানেজার  (টেকনিক্যাল সাপোর্ট) প্রকৌশলী কুদরত-ই ইলাহী প্রমুখ।

গতকাল বিকেলে জামালপুর জেলার ইসলামপুর এম এ ছামাদ পারভেজ মেমোরিয়াল মহিলা ডিগ্রি কলেজ প্রাঙ্গণে স্থানীয় রাজমিস্ত্রিদের নিয়ে পৃথক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখানে সভাপতিত্ব করেন বসুন্ধরা সিমেন্টের পরিবেশক আল-আমিন ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী আহমেদুল কবির মিনু।

প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান বলেন, সিমেন্টশিল্পে সর্বোচ্চ উত্পাদনক্ষম আধুনিক কারখানা রয়েছে একমাত্র বসুন্ধরা সিমেন্টের। বর্তমানে দেশের সবচেয়ে বেশি সিমেন্ট উত্পাদন করছে বসুন্ধরা সিমেন্ট। আর উত্পাদন প্রক্রিয়ায় ব্যবহার হচ্ছে জার্মান প্রযুক্তি ভিআরএম, যা স্থাপনার দীর্ঘস্থায়িত্বের নিশ্চয়তা দেয়।

তিনি বলেন, বসুন্ধরা সিমেন্ট কাঁচামাল সংগ্রহ থেকে শুরু করে উত্পাদনের প্রতিটি ধাপে স্বয়ংক্রিয় কম্পিউটারাইজড প্রযুক্তি অনুসরণ করে। দেশের সবচেয়ে আইকনিক প্রকল্প পদ্মা সেতু নির্মাণ প্রকল্প, পদ্মা সেতু নদী শাসন প্রকল্প, অ্যাপ্রোচ রোড এবং মেগা পাওয়ার প্লান্ট প্রকল্পের মতো বড় স্থাপনাগুলোতেও ব্যবহৃত হচ্ছে বসুন্ধরা সিমেন্ট।


মন্তব্য