kalerkantho


বিশ্বে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল : বাণিজ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বিশ্বে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল : বাণিজ্যমন্ত্রী

ঢাকার সোনারগাঁও হোটেলে আইসিসি আয়োজিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে আলোচনায় বক্তারা

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ‘ব্যবসায়ীরা অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছেন, কঠোর পরিশ্রম করে দেশের বাণিজ্যকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। সরকার চাহিদা মোতাবেক ব্যবসায়ীদের সব ধরনের সহযোগিতা দিচ্ছে। ব্যবসায়ীদের সঙ্গে নিয়মিত সভা করে তাঁদের প্রতিবন্ধকতা দূর করতে কাজ করছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। দেশের অর্থনীতিও দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। সরকার নিজস্ব অর্থায়নে বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা নিশ্চিত করা গেলে উন্নয়নে কোনো সমস্যা হবে না। বিশ্বে বাংলাদেশ এখন এগিয়ে যাওয়ার রোল মডেল। ’

গতকাল ঢাকার সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্স (আইসিসি) আয়োজিত ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা : বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তোফায়েল আহমেদ আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের অর্থনীতি এখন অনেক শক্ত অবস্থানে রয়েছে। দেশের রপ্তানি, রিজার্ভ, রেমিট্যান্সসহ সব অর্থনৈতিক সূচকই ঊর্ধ্বমুখী। এখন চ্যালেঞ্জ হলো এগিয়ে যাওয়ার। দেশের গ্রামীণ উন্নয়ন এখন চোখে পড়ার মতো। বাংলাদেশ এখন কোনো তলাবিহীন ঝুড়ি নয়, মিরাকল। ’

 

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতকে এগিয়ে নিতে অনেক চ্যালেঞ্জ সামনে এসেছিল। সেসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা সম্ভব হয়েছে। শ্রমিকদের অধিকার ও শ্রম আইন নিয়ে নানা দেশ থেকে প্রশ্ন তোলা হয়, অথচ কারখানাগুলোতে শ্রমিকদের কোনো অভিযোগ নেই। শ্রমিকরা কাজের পরিবেশ এবং প্রাপ্ত বেতনে সন্তুষ্ট। কর্মবান্ধব পরিবেশে কাজ করে শ্রমিকরা খুশি। ’

আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিশ্বব্যাংক ঢাকা অফিসের লিড ইকোনমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন। আইসিসি বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মাহবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ড. এ বি মির্জ্জা মো. আজিজুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ, বিজনেস ইনিশিয়েটিভ লিডিং ডেভেলপমেন্টের চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম, মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির  প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর, সিপিডির নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ড. মোস্তাফিজুর রহমান, ইউএনডিপি বাংলাদেশের ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর নিক বারেসফোর্ড প্রমুখ।


মন্তব্য