kalerkantho

26th march banner

দুই বাজারেই বেড়েছে সূচক ও লেনদেন

তিন কম্পানির লভ্যাংশ প্রদান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



চিলতি সপ্তাহে টানা দুই দিন দেশের দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের পতনের পর ইতিবাচক ধারায় ফিরেছে। গতকাল মঙ্গলবার তৃতীয় দিন দুই বাজারেই সূচক ও লেনদেন বৃদ্ধি পেয়েছে।

সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৩৫ কোটি ছয় লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। আর সূচক বেড়েছে ৮ পয়েন্ট। লেনদেন বেড়েছে ৯৮ কোটি ৩১ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৩৩৬ কোটি ৭৫ লাখ, আর সূচক কমেছিল ১২ পয়েন্ট।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, লেনদেন শুরুর পর থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সূচকের ঊর্ধ্বমুখিতা ছিল। এই সময়ের পর থেকে ধারাবাহিকভাবে সূচক কমলেও উত্থানের মধ্য দিয়েই দিনের লেনদেন শেষ হয়েছে। দিনশেষে সূচক দাঁড়িয়েছে চার হাজার ৪৭৫ পয়েন্টে।

ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ০.৮৬ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে এক হাজার ৭১৩ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে এক হাজার ৮৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হওয়া ৩১৫টি কম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১৭৬টি, কমেছে ৯০টি ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৫০টি কম্পানির শেয়ারের দাম।

লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে রয়েছে লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্স, এএফসি অ্যাগ্রো, ওরিয়ন ইনফিউশন, আমান ফিডস, ওরিয়ন ফার্মা, বিডি থাই, অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রি, পাওয়ার গ্রিড, ইফাদ অটোস ও সামিট পাওয়ার।

দাম বৃদ্ধির শীর্ষে রয়েছে ওরিয়ন ইনফিউশন, অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রি, ফারইস্ট ফাইন্যান্স, প্রগতি লাইফ, পাওয়ার গ্রিড, এএফসি অ্যাগ্রো, প্রিমিয়ার সিমেন্ট, বেঙ্গল উইন্ডসর, ফার্স্ট সিকি. ইসলামী ব্যাংক ও বিডি থাই।

অন্যদিকে দাম কমার শীর্ষে রয়েছে লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্স, প্রাইম ইনস্যুরেন্স, সাভার রিফ্যাক্টরিজ, মাইডাস ফাইন্যান্স, এনসিসিবিএল মিউচ্যুয়াল ফান্ড ১, দুলামিয়া কটন, ইবিএল এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ড, কেয়া কসমেটিকস, রিপাবলিক ইনস্যুরেন্স ও রিজেন্ট টেক্সটাইল।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৭০ কোটি ৭৬ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। আর সূচক বেড়েছে ১২ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২৪ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। সূচক কমেছিল ১৯ পয়েন্ট। গতকাল লেনদেন হওয়া ২৪৫টি কম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১১২টি, কমেছে ৭৯টি ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টি কম্পানির শেয়ারের দাম।

তিন কম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত তিনটি কম্পানি তাদের গ্রাহকদের জন্য শেয়ারের লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এনসিসি ব্যাংক মিউচ্যুয়াল ফান্ড-১ সাড়ে ৬ শতাংশ, বার্জার পেইন্ট বাংলাদেশ ২৭০ শতাংশ ও ফার্স্ব সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।

২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য এনসিসি ব্যাংক মিউচ্যুয়াল ফান্ড ১-এর ট্রাস্টি কমিটির বৈঠকে লভ্যাংশের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ২০১৫ সালের আয় ও পূর্ববর্তী সময়ে সঞ্চিত আয় বিবেচনায় গ্রাহকদের লভ্যাংশ দেওয়া হবে। রেকর্ড ডেট আগামী ৫ এপ্রিল। ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বরে সমাপ্ত হিসাব অনুযায়ী ইপিএস ৪৬ পয়সা। সম্পদমূল্যের পরিমাণ হচ্ছে ১১.১২ টাকা।

২৭০ শতাংশ লভ্যাংশ : বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ শেয়ার গ্রাহকদের জন্য ২৭০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বরে সমাপ্ত বছরের চূড়ান্ত হিসাবে গতকাল ২৭০ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছে। এর আগেও অন্তর্বর্তীকালীন ১০০ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছিল কম্পানিটি। ১৮ এপ্রিল বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারের পুষ্পগুচ্ছ হলে বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে। রেকর্ড ডেট ৪ এপ্রিল। শেয়ারপ্রতি কম্পানিটির আয় হয়েছে ৬৪.৩৭ টাকা।

১০ শতাংশ লভ্যাংশ : ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক সাধারণ শেয়ার গ্রাহকদের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরে এই লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়। ব্যাংকটির বার্ষিক সাধারণ সভা আগামী ২৭ এপ্রিল কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে অনুষ্ঠিত হবে। রেকর্ড ডেট আগামী ৬ এপ্রিল।


মন্তব্য