২০২১ সালে ডাব্লিউসিআইটি সম্মেলন হবে-334538 | শিল্প বাণিজ্য | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০১৬। ১৬ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৮ জিলহজ ১৪৩৭


২০২১ সালে ডাব্লিউসিআইটি সম্মেলন হবে বাংলাদেশে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিশ্বে সবচেয়ে বড় আন্তর্জাতিক ইভেন্ট ‘ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজি (ডাব্লিউসিআইটি) ২০২১’ আয়োজনের জন্য সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে স্বাগতিক দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে মনোনীত করা হয়েছে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ সূত্র জানায়, অস্ট্রেলিয়ার ক্যানবেরায় ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিসেস অ্যালায়েন্সের পরিচালনা পরিষদের সভায় সংখ্যাগরিষ্ঠ পরিচালকদের ভোটে বাংলাদেশের প্রস্তাব গৃহীত হয় এবং ২০২১ সালে ডাব্লিউসিআইটি আয়োজনের জন্য বাংলাদেশকে স্বাগতিক দেশ হিসেবে মনোনীত করা হয়। বাংলাদেশের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল অস্ট্রেলিয়া। মোট ২৭ জন পরিচালক ভোটে অংশ নেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বাংলাদেশের প্রস্তাবটিকে গ্রহণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিগত সাত বছরে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের অগ্রগতিগুলো বিবেচনায় নেওয়া হয়।

ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস অ্যান্ড টেকনোলজি অ্যালায়েন্স মহাসচিব ড. জেমস এইচ পয়সান্ট, অস্ট্রেলিয়ান ইনফরমেশন ইন্ডাস্ট্রি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রব ফিজফ্রাট্রিক, ন্যাসকমের সভাপতি আর চন্দ্র শেখরসহ বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা এ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ দীর্ঘদিন থেকেই ডাব্লিউসিআইটি ২০২১ বাংলাদেশে আয়োজনের জন্য জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছিল। গত ৯ ডিসেম্বর ২০১৫ বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও) সামিটে সজীব ওয়াজেদ উইটসা সভাপতি সান্টিয়াগো গুটিয়ারেজের বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অগ্রগতির চিত্র তুলে ধরেন এবং ডাব্লিউসিআইটি অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের আগ্রহের কথা তুলে ধরেন। ২০১৪ সালের ৩১ সেপ্টেম্বর মেক্সিকোয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ‘গ্লোবাল আইসিটি এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৪’ গ্রহণের অনুষ্ঠানে ২০২১ সালে ডাব্লিউসিআইটি বাংলাদেশে আয়োজনের ব্যাপারে প্রস্তাব করেন।

মন্তব্য