kalerkantho

দরপতন অব্যাহত

ডিএসইতে সূচক কমেছে ৩৭ পয়েন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



দরপতন অব্যাহত

টানা ছয় কার্যদিবস দেশের দুই পুুঁজিবাজারের ধারাবাহিক পতনের পর বৃহস্পতিবার সূচক কিছুটা বেড়েছিল। তবে চলতি সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রবিবার আবারও দুই বাজারেই সূচকের পতন হয়েছে।

কমেছে বেশির ভাগ কম্পানির শেয়ারের দাম। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক ও লেনদেন কমেছে। আর ৬১ শতাংশ কম্পানিরই দাম কমেছে। তবে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক কমলেও লেনদেন কিছুটা বেড়েছে। তবে ৬৩ শতাংশ কম্পানির দাম কমেছে।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩০০ কোটি ২০ লাখ টাকার শেয়ার। আর সূচক কমেছে ৩৭ পয়েন্ট। লেনদেন কমেছে ৩৬ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৩৩৬ কোটি ৯৬ লাখ টাকা।

তবে সূচক বেড়েছিল ১০ পয়েন্ট।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, লেনদেন শুরুর পর থেকে বাজারে বিক্রির চাপ বাড়তে থাকে। অতিরিক্ত বিক্রয় চাপে টানা ১৬ মিনিট সূচক কমেছে। এতে দিনের সূচক ৩১ পয়েন্ট কমে যায়। পরবর্তী সময়ে সকাল সাড়ে ১১টা পর্যন্ত সূচক কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী হয়। কিন্তু বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ধারাবাহিকভাবেই পতনের মাত্রা বেড়েছে। এতে দিনশেষে পতনের মধ্য দিয়েই লেনদেন শেষ হয়েছে। দিনশেষে সূচক দাঁড়িয়েছে চার হাজার ৪৩৫ পয়েন্ট।

ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১৫ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৭০৩ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৭৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩১১টি কম্পানির মধ্যে বেড়েছে ৮৪টি, কমেছে ১৯০টি ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টি কম্পানির শেয়ারের দাম।

লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে রয়েছে—বিএসআরএম লিমিটেড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্স, ইফাদ অটোস, কাশেম ড্রাইসেল, সিএমসি কামাল, অরিয়ন ফার্মা, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড, আমান ফিডস ও ইউনাইটেড পাওয়ার।

দাম বৃদ্ধির শীর্ষে রয়েছে—লিব্রা ইনফিউশন, সিএমসি কামাল, জেমিনি সি ফুড, ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টস, আইটিসি, জাহিন স্পিনিং, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, সপ্তম আইসিবি, রূপালী লাইফ ইনস্যুরেন্স ও রহিম টেক্স।

দাম কমার শীর্ষে রয়েছে—বিএসআরএম লিমিটেড, আজিজ পাইপস, প্রগ্রেসিভ লাইফ, ওয়াটা কেমিক্যাল, এশিয়া প্যাসিফিক, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রি, বিডি অটোকারস, বিএসআরএম স্টিল, কাশেম ড্রাইসেল ও অরিয়ন ফার্মা।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৩ কোটি ২৬ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ৪৮ পয়েন্ট। লেনদেন বেড়েছে প্রায় ১০ কোটি টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২২ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছিল ০.৩৩ পয়েন্ট। দিনশেষে সূচক দাঁড়িয়েছে আট হাজার ৩২০ পয়েন্ট। লেনদেন হওয়া ২৩১টি কম্পানির মধ্যে বেড়েছে ৪৯টি, কমেছে ১৪৭টি ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৫ কম্পানির শেয়ারের দাম।


মন্তব্য