অবৈধ বিদেশি নিয়োগকারীর বিরুদ্ধে-331038 | শিল্প বাণিজ্য | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বুধবার । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৩ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৫ জিলহজ ১৪৩৭


অবৈধ বিদেশি নিয়োগকারীর বিরুদ্ধে অভিযান

২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



অবৈধ বিদেশি নিয়োগকারীর বিরুদ্ধে অভিযান

দেশে অবস্থান করা অবৈধ বিদেশি নাগরিকদের নিয়োগ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে শিগগিরই অভিযানে নামছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। অভিযানে নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে সর্বনিম্ন পাঁচ লাখ টাকা অথবা স্বাভাবিকের তুলনায় ৫০ শতাংশ অতিরিক্ত কর আদায় করা হবে। এ দুটির মধ্যে টাকার অঙ্কে যা বেশি তাই আদায় করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এনবিআর।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছেন এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান। বৈঠকে উপস্থিত এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে কালের কণ্ঠকে বলেন, আয়কর অধ্যাদেশের ১৬৫সি ধারা অনুযায়ী জরিমানা আদায় করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এনবিআর। এ জন্য আজকের সভা থেকে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। শিগগিরই মাঠপর্যায়ে বিষয়টি নিয়ে অভিযানে নামবেন এনবিআর কর্মকর্তারা।

ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, অভিযান পরিচালনার সময় প্রয়োজন মনে করলে অভিযান পরিচালনাকারী টিম আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা নিতে পারবে। কেউ জরিমানা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তত্ক্ষণিকভাবে প্রতিষ্ঠান সিলগালা করে দেওয়া হবে।

এনবিআর সূত্র জানায়, বর্তমানে দেশে নিবন্ধিত বিদেশি কর্মীর সংখ্যা মাত্র ১২ হাজার থেকে ১৫ হাজার। কিন্তু এনবিআরসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো মনে করছে, দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত বিদেশির সংখ্যা লক্ষাধিক। বাংলাদেশে বিপুল অর্থ উপার্জন করে তারা হুন্ডির মাধ্যমে অবৈধ উপায়ে নিজ দেশে নিয়ে যাচ্ছে।

এ ছাড়া অনেক বিদেশি নাগরিক দেশীয় অনেক উদ্যোক্তার সঙ্গে যৌথভাবে পোশাক খাতের বায়িং হাউসসহ বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছে। এ ক্ষেত্রে বিনিয়োগ বোর্ডে নিবন্ধন নেওয়ার কথা থাকলেও দেশীয় উদ্যোক্তাদের সহযোগিতায় তারা পার পেয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি নানা খরচ দেখিয়ে অর্থপাচার করছে তারা। নিজেদের লভ্যাংশও ব্যাংকিং মাধ্যমে না নিয়ে হুন্ডির মাধ্যমে পাঠাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে বিপুল অঙ্কের রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। বিশেষ করে তৈরি পোশাক খাতে এমন অবৈধ বিদেশি কর্মীর সংখ্যা অনেক বেশি বলে জানা গেছে।

অবৈধ বিদেশি নাগরিক নিয়োগকারী এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে জরিমানা আদায়ে বিশেষ অভিযানে নামছে এনবিআর। এর আগে চলতি অর্থবছরের বাজেট ও অর্থ আইনে বিদেশিদের কাছ থেকে কর আদায়ে ১৮৮৪ সালের আয়কর অধ্যাদেশ সংশোধন করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি তার প্রতিষ্ঠানে বিদেশি কোনো কর্মী নিয়োগ দিতে চাইলে অবশ্যই তাদের বিনিয়োগ বোর্ডসহ দেশের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কাছে নিবন্ধিত হতে হবে। আয়কর বর্ষের যে সময়েই কোনো বিদেশি একটি প্রতিষ্ঠানে কাজ শুরু করুক না কেন, তাকে কর দিতে হবে।

আর কোনো প্রতিষ্ঠান যদি অবৈধভাবে বিদেশিদের কাজ করার সুযোগ দেয়, তাহলে সেই প্রতিষ্ঠানকে স্বাভাবিকের তুলনায় ৫০ শতাংশ অতিরিক্ত কর দিতে হবে। অথবা পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করা হবে। এ দুটির মধ্যে যেটির পরিমাণ বেশি হবে, সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে সেটি আদায় করা হবে। আইনে এমনটিই বলা হয়েছে।

মন্তব্য