kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্সের দাম বাড়ছেই

রফিকুল ইসলাম   

২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্সের দাম বাড়ছেই

টানা পাঁচ কার্যদিবস দেশের দুই পুঁজিবাজারে সূচক ও লেনদেন অব্যাহতভাবেই পতন হচ্ছে। একই সঙ্গে কমেছে বেশির কম্পানির দামও।

কিন্তু বাজারের পতন অবস্থাতেও চাঙ্গাভাব ধরে রেখেছে লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড। গত ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে বাজারে পতন শুরু হলেও ওই দিন থেকেই দাম বাড়তে শুরু করেছে কম্পানিটির। ছয় কার্যদিবস ব্যবধানে কম্পানিটির দাম বেড়েছে ১৫.৪ টাকা।

গতকাল মঙ্গলবার দেশের দুই পুঁজিবাজারে সূচক ও লেনদেন কমেছে। গত সপ্তাহের শেষ দুই কার্যদিবস ও চলতি সপ্তাহের তিন দিনেও কমেছে সূচক। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে ৪৪০ কোটি ৬৩ লাখ টাকার লেনদেন হলেও সূচক কমেছে ২৮ পয়েন্ট। আর ৫২ শতাংশ কম্পানির দাম কমেছে। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও সূচক ও লেনদেনে পতন হয়েছে। সূচক কমেছে ৪৬ পয়েন্ট। আর ৫৫ শতাংশ কম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের এই কম্পানির তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত এক মাসের প্রথম ১৪ কার্যদিবসে শেয়ারের দাম ছিল ২৬-৩০ টাকার মধ্যে। গত ১ ফেব্রুয়ারি কম্পানিটির শেয়ারের দাম ছিল ২৭.২ টাকা। কিন্তু গত ৮ ফেব্রুয়ারি শেয়ারের দাম হয় ২৬.৫ টাকায়, যা গত তিন মাসে সর্বনিম্ন দাম। এর আগে গত বছরের নভেম্বর মাসে সর্বনিম্ন ২৬ টাকা দাম হয়েছিল। গত মাসের ২২ ফেব্রুয়ারি কম্পানিটির সর্বশেষ লেনদেন হয় ২৭ টাকার মধ্যে। কিন্তু পরদিনই কম্পানিটির শেয়ারের দাম ওঠে ৩৬ টাকার ঘরে। ওই দিনই কম্পানিটির লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকেই দাম বাড়তে বাড়তে ৪২.৪ টাকায় দাঁড়িয়েছে। ছয় কার্যদিবসে দাম বেড়েছে ১৫.৪ টাকা। গতকালই প্রতি শেয়ারের দাম বেড়েছে প্রায় দুই টাকা।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্স কম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের ১৫ শতাংশ ক্যাশ ও ১৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। গত ২৩ তারিখ কম্পানিটি লভ্যাংশ ঘোষণা করে। আগামী ১৪ মার্চ কম্পানিটির রেকর্ড ডেট। ২০১৪ সালে কম্পানিটি ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছিল। এর আগের বছর ২০১৩ সালে ৫ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছিল।


মন্তব্য